২১ সালের মধ্যে সবার জন্য নিরাপদ পানি: প্রধানমন্ত্রী

“মিলেনিয়াম ডেভেলপমেন্ট গোল (এমডিজি) অর্জনে বাংলাদেশ এখন মডেল। ইতোমধ্যে আমরা শিশুমৃত্যু হার কমিয়েছি, মাতৃমৃত্যু হার কমিয়েছে বলে মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন আমরা প্রাথমিক শিক্ষার হার বাড়িয়েছি, নারীর ক্ষমতায়নেও আমরা অনেক এগিয়েছি। আগামী ২০২১ সালের মধ্যে আমরা সকলের জন্য নিরাপদ পানির ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে চাই।”

 

শনিবার সকালে রাজধানীর প্যান প্যাসেফিক সোনারগাঁও হোটেলে আযোজিত ‘ঢাকা পানি সম্মেলন’-২০১৭ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
সকালে দক্ষিণ এশিয়া, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, পূর্ব এশিয়া ও ডেল্টা কোয়ালিশনভুক্ত অঞ্চলের ২৭টি দেশের দু’দিনব্যাপী ‘ ঢাকা পানি সম্মেলন ২০১৭’ শুরু হয়েছে। ২৯ ও ৩০ জুলাই অনুষ্ঠিতব্য দুই দিনব্যাপী পানি সম্মেলনের প্রতিপাদ্য হচ্ছে টেকসই উন্নয়নে পানি।
টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) বাস্তবায়নে পানির সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করে খাদ্য নিরাপত্তাসহ এসডিজির ৭টি অভিষ্ঠ লক্ষ্যকে সামনে রেখে এই পানি ঢাকায় প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে এই সম্মেলনে ২৭টি দেশের মন্ত্রী- প্রতিমন্ত্রীসহ ৮২ জন বিদেশী প্রতিনিধি অংশ গ্রহণ করেছেন।

নিরাপদ পানির গুরুত্ব উপলব্ধি করে এসডিজির ১৭টি লক্ষ্যের মধ্যে ১ নম্বর লক্ষ্য হচ্ছে সরাসরি পানির সাথে সম্পৃক্ত। এসডিজি-৬- এর অধীনে ছয়টি পৃথক পৃথক টার্গেট নির্ধারণ করা হয়েছে। এর অগ্রগতি পর্যালোচনার জন্যও আটটি ইন্ডিকেটর নির্ধারণ করা হয়েছে।

এসডিজি-৬ ছাড়াও এসডিজি’র আরও ৭টি লক্ষ্য প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে পানি ব্যবস্থাপনার সাথে সম্পর্কিত। সম্মেলনে নিরাপদ পানি, স্যানিটেশন, পানির গুণগতমান, ব্যবহার এবং সমন্বিত পানি ব্যবস্থাপনার উপর ৪টি কারিগরি আলোচনা পর্ব অনুষ্ঠিত হবে।

এ আলোচনা পর্বসমূহে ৮টি সুনির্দিষ্ট বিষয়ের উপর বিশেষজ্ঞ পরামর্শ ও মতামত গ্রহণ করা হবে।

সম্মেলনের শেষ পর্যায়ে অংশগ্রহণকারী দেশগুলোর সাথে সুপারিশক্রমে ‘ঢাকা পানি ঘোষণাপত্র’ গৃহীত হবে।