অপরাধে জড়ালে কাউকে ছাড় নয় : লাকসামে এলজিআরডি মন্ত্রী

সরকারের উন্নয়ন সহযোগীতার জন্য পৌর মেয়র, কাউন্সিলর, ইউপি চেয়ারম্যান, মেম্বার, দলীয় নেতাকর্মী ও জনগণের সমন্বয়ে কাজ করলে আগামী দিনগুলোতে দেশ আরো দ্রুত এগিয়ে যাবে। সে জন্য দলের ভাবমূর্তি নষ্ট হয় কাউকে এমন কোন কাজ করা যাবে না। বিগত দিনগুলোতে যারাই দলবিরোধী ও অনৈতিক কাজে লিপ্ত হয়েছে তাদেরকে সাজা ভোগ করতে হয়েছে। আমি আশা করবো লাকসাম-মনোহরগঞ্জবাসীর উন্নয়নে সবাই সরকারকে সহযোগীতা করবে। ২৬ জুলাই শুক্রবার বিকেলে দলীয় কার্যালয়ে উপজেলা ও পৌরসভা আওয়ামীলীগ এবং অঙ্গসংগঠনের যৌথ কর্মী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।



মন্ত্রী দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, মাদকের সাথে যুক্ত হওয়া, দরবারের নামে জিম্মি করে মানুষ থেকে টাকা আদায়, ভবন নির্মানের কাজে ইট-বালু নিতে বাধ্য করা সহ অনৈতিক কোন কাজে জড়িয়ে পড়লে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। জীবিকা নির্বাহের জন্য সততার ভিত্তিতে ব্যবসা-বাণিজ্য করতে হবে। আগামীদিনগুলোতে দল ও দেশের উন্নতির জন্য ঐক্যবদ্ধ থাকারও আহবান জানান তিনি।


এসময় উপস্থিত ছিলেন, লাকসাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট ইউনুছ ভূইয়া, পৌর মেয়র অধ্যাপক আবুল খায়ের, জেলা পরিষদ সদস্য এড. আবু তাহের, এড. তানজিনা আক্তার, উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ.কে.এম সাইফুল আলম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মহব্বত আলী, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এড. রফিকুল ইসলাম হিরা, যুবলীগ সদস্য মোঃ মনিরুল ইসলাম রতন, পৌর প্যানেল মেয়র-২ আবদুল আলিম দিদার, মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পড়শী সাহা, আওয়ামীলীগ নেতা হাজী ইছহাক মিয়া, কাউন্সিলর মোহাম্মদ আলী, খলিলুর রহমান, গোলাম কিবরিয়া সুমন, ওমর আলী, শাহজাহান মজুমদার, ইউপি চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন শামিম, ওমর ফারুক, মোঃ রুহুল আমিন, হারুনুর রশিদ, আলী আহমেদ, শাহিদুল ইসলাম শাহিন, আবদুর রশিদ সওদাগর, আবদুল আউয়াল, উপজেলা যুবলীগ সদস্য মোঃ মনির হোসেন, মাহবুব মোর্শেদ ফারুক, স্বেচ্ছাসেবক লীগ সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, ছাত্রলীগ সভাপতি মোঃ শিহাব খান, সাধারণ সম্পাদক মোঃ সাইফুল ইসলাম প্রমুখ।