আবরার হত্যা: বুয়েট থেকে ২৬ জন স্থায়ী বহিষ্কার - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

আবরার হত্যা: বুয়েট থেকে ২৬ জন স্থায়ী বহিষ্কার



অনলাইন ডেস্ক, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

ভারতে বিরোধী স্ট্যাটাস দেওয়ায় বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় বা বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় প্রতিষ্ঠানটির ২৬ ছাত্রকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।

হত্যাকাণ্ডের পর বুয়েট কর্তৃপক্ষের গঠিত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের ভিত্তিতে এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে এ সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত জানিয়েছে বুয়েট কর্তৃপক্ষ। খবর বিবিসি বাংলার

যে ২৬ ছাত্রকে স্থায়ী বহিষ্কার করা হয়েছে তাদের মধ্যে ২৫ জন আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের চার্জশীটভুক্ত আসামী।

বহিষ্কৃতদের মধ্যে রয়েছেন ছাত্রলীগ বুয়েট শাখার সাবেক সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেলসহ সংগঠনটির আরো কিছু সাবেক নেতা-কর্মী।

স্থায়ীভাবে বহিষ্কৃত ছাত্ররা হলেন:
মেহেদী হাসান রবিন (১৫ ব্যাচ), মোহাম্মদ অনিক সরকার (১৫ ব্যাচ), ইফতি মোশারফ সকাল (১৬ ব্যাচ), মো. মনিরুজ্জামান মনির (১৬ ব্যাচ), মো. মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন (১৫ ব্যাচ), মো. মুজাহিদুর রহমান (১৬ ব্যাচ), মেহেদী হাসান রাসেল (১৩ ব্যাচ), এহতেশামুল রাব্বি তানিম (১৭ ব্যাচ), খন্দকার তাবাককারুল ইসলাম তানভীর (১৬ ব্যাচ), মুনতাসির আল জেমি (১৭ ব্যাচ), এ এস এম নাজমুস সাদাত (১৭ ব্যাচ), মো. শামীম বিল্লাহ (১৭ ব্যাচ), মোর্শেদ অমর্ত্য ইসলাম (১৭ ব্যাচ), হোসাইন মোহাম্মদ তোহা (১৭ ব্যাচ), মুজতবা রাফিদ (১৬ ব্যাচ), মো. মিজানুর রহমান (১৬), মো. আশিকুল ইসলাম (১৬ ব্যাচ), এস এম মাহমুদ (১৪ ব্যাচ), ইশতিয়াক আহমেদ মুন্না (১৫ ব্যাচ), অমিত সাহা (১৬ ব্যাচ), মো. মাজেদুর রহমান (১৭ ব্যাচ), মো. শামসুল আরেফিন (১৭ ব্যাচ), মোয়াজ আবু হুরাইরা (১৭ ব্যাচ), মো. আকাশ হোসেন (১৬ ব্যাচ), মোরশেদ-উজ-জামান মন্ডল (১৬ ব্যাচ), মুহতাসিম ফুয়াদ (১৪ ব্যাচ)।

আর শাস্তিপ্রাপ্ত অন্য ৬ জন হলেন-
আবু নওশাদ সাকিব (১৭ ব্যাচ), মো. সাইফুল ইসলাম (১৭ ব্যাচ), মোহাম্মদ গালিব গালিব (১৭ ব্যাচ), মো. শাওন মিয়া (১৭ ব্যাচ), সাখাওয়াত ইকবাল অভি (১৭ ব্যাচ), মো. ইসমাঈল (১৬ ব্যাচ)।

প্রসঙ্গত, ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেয়ার জেরে বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে গত ৬ অক্টোবর রাতে ডেকে নিয়ে যায় বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী। প‌রে শেরেবাংলা হলের দ্বিতীয় তলা থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যান তার সহপাঠীরা। সেখানে চি‌কিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা ক‌রেন।

আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় সব মিলিয়ে ২৫ জনকে অভিযুক্ত করে গত ১৩ নভেম্বর চার্জশীট তৈরি করেছে ঢাকার গোয়েন্দা পুলিশ।

আলোচিত এই হত্যাকাণ্ডের মামলার এজাহারে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের বেশ কয়েকজন নেতাসহ প্রথমে ১৯ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছিল, তবে তদন্তের পরে আসামীর সংখ্যা এখন ২৫ জন।

গত ৭ই অক্টোবর ভোররাতে আবরার ফাহাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয় বুয়েটের শেরে বাংলা হল থেকে। এর পরপরই ঢাকায় অবস্থিত বাংলাদেশের এই প্রধান প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বিচারের দাবিতে আন্দোলনে নামে।

চার্জশীটে বলা হয়েছে, আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের সাথে ১১ জন সরাসরি সম্পৃক্ত এবং বাকিরা পরোক্ষভাবে জড়িত ছিল। গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে আটজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে বলে পুলিশের তরফ থেকে জানানো হয়।

আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের পর বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ব্যাপক ছাত্র বিক্ষোভ হয়। এই হত্যাকাণ্ডের বিচারের দাবিতে সমাজের নানা শ্রেণী-পেশার মানুষও সোচ্চার হয়েছে।

সে প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় বা বুয়েট কর্তৃপক্ষ ক্যাম্পাসে সব ধরনের রাজনৈতিক সংগঠন এবং ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ ঘোষণা করেন।


এ সম্পর্কিত আরো খবর

জাতীয় এর অন্যান্য খবরসমূহ