একদিনে করোনায় আরও প্রান গেল ৪২ জনের,নতুন আক্রান্ত ২৭৩৫

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৪২ জনের প্রান গেল। এই সময়ে নতুন করে ২ হাজার ৭৩৫ জন শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হলেন ৬৮ হাজার ৫০৪ জন এবং মারা গেলেন ৯৩০জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৬৫৭ জন এবং মোট সুস্থ হয়েছেন ১৪ হাজার ৫৬০ জন।

সোমবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ হাজার ৯৬১টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১২ হাজার ৯৪৪টি নমুনা পরীক্ষা করে ২ হাজার ৭৩৫ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ৬৮ হাজার ৫০৪ জন।

এ পর্যন্ত আক্রান্ত হওয়া রোগীদের মধ্যে লিঙ্গভেদে পুরুষ ৭১ শতাংশ ও নারী ২৯ শতাংশ।

ডা. নাসিমা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ৪২ জন। এর মধ্যে পুরুষ ৩৩ জন ও নারী ৯ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ৯৩০ জন।

এ পর্যন্ত যত কোভিড রোগীর মৃত্যু হয়েছে তার মধ্যে পুরুষ ৭৭ শতাংশ এবং নারী ২৩ শতাংশ।

তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৬৫৭ জন এবং মোট সুস্থ হয়েছেন ১৪ হাজার ৫৬০ জন।

শনাক্তের তুলনায় সুস্থতার হার ২১ দশমিক ২৫ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার ১.৩৬ শতাংশ।

ডা. নাসিমা জানান, বয়স বিশ্লেষণে ১১-২০ বছরের মধ্যে একজন, ২১-৩০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৩১-৪০ বছরের মধ্যে একজন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৭ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ১০ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ১২ জন এবং ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ৪ জন, ৮১-৯০ বছরের মধ্যে ২ জন ও ও ৯১-১০০ বছরের মধ্যে ‍২ জন মারা গেছেন।

তিনি আরও জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, ঢাকা বিভাগে ২৫ জন, চট্টগ্রামে ৮ জন, সিলেটে একজন, রাজশাহীতে একজন, ময়মনসিংহে ২ জন, বরিশালে ২ জন, খুলনায় ২ জন ও রংপুরে একজন মারা গেছেন।

প্রসঙ্গত গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহর থেকে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। দেশে প্রথম কোভিড-১৯ রোগীশনাক্ত হন ৮ মার্চ এবং এ রোগে আক্রান্ত প্রথম রোগীর মৃত্যু হয় ১৮ মার্চ।

২৫ মার্চ প্রথমবারের মতো রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) জানায়, বাংলাদেশে সীমিত পরিসরে কমিউনিটি ট্রান্সমিশন বা সামাজিকভাবে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ হচ্ছে।