কাউখালীতে কোরবানীর পশু জবাইকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে আহত হাঈনুল ইসলামের অবস্থা আশংকা জনক

পিরোজপুরের কাউখালীতে কোরবানীর পশু জবাইকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে আহত ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন হাঈনুর ইসলামের(৪০) অবস্থা সংকটাপন্ন। ঈদ উল আজহার দিন কাউখালী উপজেলার চিরাপাড়া পারসাতুরিয়া ইউনিয়নের পারসাতুরিয়া গ্রামে কোরবানীর পশু জবাইকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে হাইনুর ইসলামসহ ৬ জন আহত হয়। পুলিশ দুইজনকে গ্রেফতার করে পিরোজপুর জেল হাজতে প্রেরণ করেন।

 

বিবরনে জানাগেছে, কাউখালী উপজেলার পারসাতুরিয়া অহেদিয়া জামে মসজিদের সম্মুখে শওকত হোসেন ও তার সহযোগীরা কোরবানীর পশু জবাই দেয়ার প্রস্তুতি নিলে ব্যবসায়ী শাহিন ও মসজিদের মুসল্লিরা মসজিদের পবিত্রতা ও পরিচ্ছনতা রক্ষার জন্য মসজিদ সম্মুখ থেকে একটু দূরে পশু জবাই করার জন্য বললে শওকত গংরা ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। কথা কাটা-কাটির এক পর্যায় উভয় পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে উভয় পক্ষে ৬ জন আহত হয়। আহতদের মধ্যে হাঈনুর ইসলামের অবস্থা গুরুতর হওয়া কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে বরিশাল মেডিকেল হাসপাতালে পাঠান। অবস্থার অবনতি ঘটলে সেখানের চিকিৎসকরা তাকে ঢাকা মেডিকেলে প্রেরণ করেন। তিনি বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

 

এব্যাপারে মাঈনুল ইসলাম বাদী হয়ে মোঃ ইব্রাহীম হাওলাদার, মোঃ চাঁন, মোঃ হুমাউন হাওলাদার, মোঃ শওকত হোসেন, মোঃ আবিদকে আসামী করে কাউখালী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলার এজাহার মুল হোতা শওকত হোসেন ও মোঃ আবিদকে পুলিশ গ্রেফতার করে পিরোজপুর জেল হাজতে প্রেরণ করেছেন। কাউখালী থানার ওসি মোঃ কামরুজ্জামান তালুকদার জানান ঘটনার খবর পেয়েইে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মূল আসামী দুই জনকে গ্রেফতার করেছে। অন্যসব আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যহত রয়েছে। বর্তমানে এলাকার পরিস্থিতি শান্ত।