৮০ ভাগ জনমতই এখন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের পক্ষে: ড. খন্দকার মোশারফ হোসেন

সাম্প্রতিক কিছু জরিপে জনমত নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের পক্ষে উল্লেখ করে বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশারফ হোসেন বলেছেন, এই সরকারের হাত থেকে দেশকে রক্ষা করতে দেশের জনগণই এখন তত্ত্বাবধায়ক সরকার চায়। মোশারফ বলেন, “সকল জরিপেই দেখা গেছে, অধিকাংশ জনগণ এখন নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন চায়। ৮০ ভাগ জনমতই এখন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের পক্ষে। এই জুলুমবাজ সরকারের হাত থেকে দেশকে রক্ষা করতে জনগণ এখনই এটি চায়।”
রফিক মজুমদার হত্যাকাণ্ডে সরকারকে দায়ী করে এবং কঠোর সমালোচনা করে মোশারফ বলেন, “স্বাধীনতার পরে এ পর্যন্ত ২৫ জন ফাঁসির আসামিকে ক্ষমা করা হয়েছে। এর মধ্যে ২১ জনই এ সরকারের আমলে।”এভাবেই সন্ত্রাসীদের প্রশ্রয় দেওয়া হচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
জাগ্রত জনতা ফোরাম ‘রাজনৈতিক কর্মসূচিতে বাধা প্রদান, মানবাধিকার ভূলুণ্ঠিত, অকার্যকর আইনের শাসন, সরকার কর্তৃক দেশকে সংঘাতের দিকে ঠেলে দিয়ে অরাজনৈতিক শক্তিকে ক্ষমতায় আনার ষড়যন্ত্র: প্রেক্ষিত শঙ্কিত জনতা’ শীর্ষক এ আলোচনা সভার আয়োজন করে। দলীয় সরকারের অধীনে বিএনপি কোনো নির্বাচনে অংশ নেবে না জানিয়ে মোশারফ বলেন, “দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের যে পরিকল্পনা সরকার নিয়েছে, তাতে শুধু বিএনপি কেন, কোনো দলই অংশ নেবে না।”
আয়োজক সংগঠনের সভাপতি শহীদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- ঢাকা মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব আব্দুস সালাম, লেবার পার্টির সভাপাতি ড. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান প্রমুখ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।