এটাই বিএনপির জন্য শেষ সুযোগ:নাসিম

সংসদে উন্মুক্ত আলোচনা করার জন্য এটাই বিএনপির জন্য শেষ সুযোগ উল্লেখ করে বিএনপিকে এই সুযোগ গ্রহণ করার আহবান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম।খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আগামী নির্বাচনের জন্য আওয়ামী লীগ মাঠে নেমে গেছে। তারা বসে নেই। তাই আলোচনার জন্য এটাই বিএনপির শেষ সুযোগ। তাই রাজপথে নৈরাজ্য না করে এই শেষ সুযোগ গ্রহণ করুন।বুধবার দুপুরে বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে মানববন্ধন ও র‌্যালি পূর্ব সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে নাসিম এসব কথা বলেন। সম্মিলিত আওয়ামী সমর্থক জোট এই মানববন্ধনের আয়োজক।

অন্তর্বর্তী সরকারের অধীনেই নির্বাচন হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, অন্তর্বর্তী সরকারের রূপরেখা নিয়ে উন্মুক্ত আলোচনা হবে, কোন গোপন আলোচনা নয়। তাদের যদি কোন রূপরেখা থাকে তবে তারা তা পেশ করতে পারে। দেশের সকল মিডিয়ার মাধ্যমে সারা দুনিয়া তা দেখবে।

এখন সংঘাত নয়, আলোচনার যুগ বলেও মন্তব্য করেন নাসিম।

যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচাতে বিএনপি রাজপথে নৈরাজ্য সৃষ্টি করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, নৈরাজ্য করে কোনো লাভ হবে না। আমরা যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের শেষ পর্যায়ে এসে গেছি। আমরা আশা করছি এই বিচারের দুটি রায় হবেই।

এ সময় দেশের হত্যাকাণ্ড সম্পর্কে তিনি আরো বলেন, বিএনপি রাজনৈতিক যে কোনো হত্যাকাণ্ড ঘটলেই আওয়ামী লীগ ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে দায়ী করে। এই সরকারের কিছু ভুল থাকতে পারে। তবে আমরা অনেক হত্যাকাণ্ডের বিচার করেছি।

নাসিম অভিযোগ করে বলেন, বিএনপির সময়ে কোনো হত্যাকাণ্ডের বিচার হয়নি। এ এস এম কিবরিয়া হত্যাসহ কোনো রাজনৈতিক হত্যার বিচার হয়নি। কিন্তু তারা এখন বড় বড় কথা বলছে।

এ সময় তিনি বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে বলেন, চেঁচামেচি করে লাভ নেই। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগ আবার ক্ষমতায় আসবে। তাই নিজেদের জনপ্রিয়তা যাচাই করতে নৈরাজ্য না করে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিন।

সংগঠনের আহবায়ক আব্দুল হক সবুজের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে আওয়ামী লীগের শ্রমবিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক শহিদুল ইসলাম মিলন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। মানববন্ধনে প্রধান বক্তা ছিলেন ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়া জামায়াতের আমীর হিসেবে যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচানোর দায়িত্ব নিয়েছেন। কিন্তু যতই ষড়যন্ত্র করুন না কেন এদের বিচার হবেই, হবে। এটা কেউ বন্ধ করতে পারবে না।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।