নৌকায় ভোট দিতে দুই হাত তুলে ওয়াদা করালেন প্রধানমন্ত্রী - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

নৌকায় ভোট দিতে দুই হাত তুলে ওয়াদা করালেন প্রধানমন্ত্রী



ঢাকা, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

আজ রোববার ঢাকার প্রথম নির্বাচনী জনসভা কামরাঙ্গীরচর আওয়ামী লীগ সভানেত্রী এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে ভোট চেয়ে বলেছেন, ‘আগামী নির্বাচনেও আমি আপনাদের কাছে নৌকা মার্কায় ভোট চাই। আপনারা দুই হাত তুলে ওয়াদা করেন আমাদের ভোট দিবেন।’ রোববার বিকালে রাজধানীর কামরাঙ্গীচরের কোম্পানি ঘাট মাঠে ঢাকা-২ আসনের নির্বাচনী জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এই ওয়াদা নেন। এ সময় যুদ্ধাপরাধীদের বিচারে তার সরকারের দৃঢ় অবস্থান ব্যক্ত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যুদ্ধাপরাধীরা স্বাধীনতার কলঙ্ক। বাংলাদেশের মানুষের কপাল থেকে এই কলঙ্ক আমরা মুছে ফেলতে চাই।’

বিরোধীদলীয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্যে করে তিনি বলেন, ‘আপনার দোসর জামায়াতকে রক্ষার জন্য আপনি হরতাল দেন। যতই আন্দোলনের নামে আস্ফালন করেন না কেন বিচার বন্ধ করতে পারবেন না। বরং মানুষ হত্যা করেন, পুলিশ হত্যা করেন, এই হত্যার জন্য একদিন বাংলার মাটিতে আপনি, আপনার ক্যাডার এবং দোসরদেরও বিচার হবে।’

মহাজোট সরকারেরর বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, ‘জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা আমরা গড়ে তুলব। ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ যাতে বিশ্বসভায় মর্যাদার আসনে প্রতিষ্ঠিত হয়, সেইভাবে আমরা বাংলাদেশকে গড়ে তুলব।’

খালেদা জিয়ার বক্তব্যেও সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘আজকে ছেলে-মেয়েরা লেখাপড়া শিখছে, এটা উনার (খালেদা জিয়া) পছন্দ হচ্ছে না। বিএনপির আমলে ৪০ ভাগ পাস করতো, এখন ৮৬ ভাগ পাস করে। পছন্দ না হওয়ারই কথা। আমি পাস করি নাই তো তোরা পাস করবি কেন? উনার কথা মনে হয় এটাই।’

বঙ্গবন্ধুকন্যা আরও বলেন, ‘মানুষ উন্নতি করে আর উনারা আসেন অবনতি করতে। ফলাফল মানুষ থাকে অন্ধকারে। বিদ্যুৎ থাকে না।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘নৌকায় ভোট দিলেই মানুষ কিছু পায়। এই নৌকায় ভোট দিয়ে স্বাধীনতা পেয়েছেন। আজকে উন্নয়ন পাচ্ছেন।’

তিনি এ সময় কামরাঙ্গীচর এলাকাকে সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্ত করার ঘোষণা দেন। এছাড়াও খোলামুড়া-কামরঙ্গীরচর সেতু, ১টি হাসপাতাল, ১টি মাধ্যমিক ও ৩টি প্রাথমিক  বিদ্যালয়ের  ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনসহ পুলিশ বাহিনীর জন্য গাড়ি প্রদান করেন প্রধানমন্ত্রী।

ঢাকা-২ আসনের সংসদ সদস্য এবং আইন প্রতিমন্ত্রী কামরুল ইসলামের সভাপতিত্বে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও স্থানীয় সরকারমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বেনজির আহমেদ এমপি, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ আজিজ, সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, নসরুল হামিদ বিপু এমপি, স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি মোল্লা আবু কাওছার, ছাত্রলীগ সভাপতি বদিউজ্জামান সোহাগ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।


বাংলাদেশ এর অন্যান্য খবরসমূহ
রাজনীতি এর অন্যান্য খবরসমূহ
পূর্বের সংবাদ