রাজধানীর মতিঝিলে জামায়াতে ইসলামীর পূর্বঘোষিত সমাবেশে শান্তিপূর্ণভাবে শেষ

রাজধানীর মতিঝিলে জামায়াতে ইসলামীর পূর্বঘোষিত সমাবেশে শান্তিপূর্ণভাবে শেষে হয়েছে। সমাবেশ শেষে বিক্ষোভ মিছিল করছে জামায়াতে ইসলামী। সোমবার সকার পৌনে ১১টার দিকে সমাবেশ শেষ করে মিছিল শুরু জামায়াত-শিবির। মিছিলটি দৈনিক বাংলা-ফকিরেরপুল হয়ে বিজয়নগর নাইটেঙ্গল মোড়ে গিয়ে শেষ হবে।

এর আগে সোমবার সকাল ১০টায় কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে কর্মসূচি শুরু করে দলটি।
বগুড়ায় জামায়াত-শিবিরের চার নেতাকর্মী নিহতের প্রতিবাদ, নির্দলীয়-নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারব্যবস্থা পুনর্বহাল, জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদ, জনদুর্ভোগ লাঘব ও আটক নেতাদের মুক্তির দাবিতে কেন্দ্রীয়ভাবে জামায়াত এই কর্মসূচির আয়োজন করে। জামায়াত বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেটে এই কর্মসূচির অনুমতি চাইলেও শেষ পর্যন্ত মতিঝিলে তাদের সমাবেশ করার অনুমতি দেয় পুলিশ।
সকাল ৯টার দিকে টঙ্গী ও গাজীপুরসহ কয়েকটি এলাকা থেকে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে সমাবেশস্থলে উপস্থিত হয়। এতে চত্বরের উত্তর পাশ দিয়ে কমলাপুরের দিকে যান চলাচল পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়। ১০টার দিকে নেতাকর্মীদের উপস্থিতি বাড়লে চত্বরের পশ্চিম ও উত্তরপাশ পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়।
বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীদের কেউ কেউ বুকে-পিঠে ‘সাঈদীর কিছু হলে জ্বলবে আগুন ঘরে ঘরে’-এমন স্লোগান লিখে কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছেন। এছাড়া সবাই ‘অবৈধ ট্রাইব্যুনাল ভেঙে দাও গুড়িয়ে দাও’ স্লোগান দিচ্ছেন। বিভিন্ন স্থান থেকে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা মতিঝিলে এসে জড়ো হচ্ছেন।
র‌্যাব-পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর শতাধিক সদস্য শাপলা চত্বরের পূর্ব পাশে শান্তিপূর্ণ অবস্থানে রয়েছেন।
বেলা সাড়ে ন’টায় ঢাকা মহানগর পুলিশের মতিঝিল জোনের এডিসি মেহেদি হাসান নতুন বার্তা ডটকমকে বলেন, “আমাদের অবস্থান সব ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে। জামায়াত-শিবির শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করলে বাধা দেয়ার কোনো কারণ নেই।”
তিনি বলেন, “এর আগের কর্মসূচিগুলোতে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা রাস্তায় নেমেই ভাঙচুর শুরু করত। এজন্য তাদের বাধা দেয়া হতো।”
সমাবেশ শুরুর আগে পৌনে ১০টায় জামায়াতের কেন্দ্রীয় মজলিসে শুরা সদস্য ও ঢাকা মহানগরী সহকারী সেক্রেটারি সেলিম উদ্দিন নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, “আবেগের বশবর্তী না হয়ে আমরা ঠাণ্ডা মাথায় শান্তিপূর্ণ আন্দোলন কর্মসূচির মাধ্যমে দাবি আদায় করব।”
এদিকে, জামায়াতের সমাবেশের কারণে মতিঝিল ও আশপাশের এলাকায় ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। দুর্ভোগে পড়েছে অফিসগামী জনসাধারণ।অন্যদিকে, জামায়াত-শিবিরের সমাবেশ এখন পর্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে চলছে বলে জানিয়েছেন মতিঝিল জোনের পুলিশের এডিসি মেহেদী হাসান। তিনি বলেন, কোনো ধরনের নাশকতা সৃষ্টির চেষ্টা করা হলে পুলিশ তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ  করবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।