সরকার দ্বৈতনীতি অবলম্বন করছে: ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া দাবী করছেন কর্মসূচি পালনে অনুমতি দেয়ার ক্ষেত্রে সরকার দ্বৈতনীতি অবলম্বন করছে। তিনি বলেন, দেশে এখন আঁতাতের রাজনীতি শুরু হয়েছে। দেশ ও জাতিকে উদ্ধার করতে হলে শক্ত অবস্থান নিতে হবে। কঠোর কর্মসূচি দিয়ে রাজপথ দখলে নিতে হবে। শাহবাগের অবরোধ কর্মসূচির প্রতি ইঙ্গিত করে রফিকুল ইসলাম বলেন, বিএনপিকে সমাবেশ করার অনুমতি দেয়া হচ্ছে না। সমাবেশ করতে গেলে অন্যায়ভাবে পেটানো হচ্ছে। অথচ অন্যরা অনায়াসে সভা-সমাবেশ করে যাচ্ছে।
তিনি বলেন হলমার্ক কেলেঙ্কারি, পদ্মা সেতু দুর্নীতি, দ্রব্যমূল্যের অসহনীয় ঊর্ধগতি প্রভৃতি বিষয়ে বর্তমান সরকারের ব্যার্থতার বিরুদ্ধে আন্দোলন সংগ্রাম না করার দায় এড়ানো যাবে না। এইজন্য  বিএনপিকে রাজপথে নেমে আসার আহবান জানান। বিএনপির জ্যেষ্ঠ এ নেতা বলেন, অবিলম্বে কঠোর আন্দোলন-সংগ্রাম গড়ে তুলতে হবে। ফ্যাসিবাদী এই সরকারকে তত্ত্বাবধায়ক সরকার পুনর্বহালে বাধ্য করতে হলে শুধু আলোচনায় আর হবে না।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ নিজেদের অধীনেই নির্বাচন করার জন্য পরিকল্পনা মাফিক সব আয়োজন করে যাচ্ছে। এর বিরুদ্ধে প্রতিরোধমূলক কঠোর কর্মসূচি দিতে হবে। এছাড়া তাদেরকে বাধ্য করা যাবে না। সাভারের বিএনপি নেতা ডা. দেওয়ান সালাউদ্দিন বাবুর মুক্তির দাবিতে শনিবার প্রেসক্লাবের সামনে ঢাকা জেলা মহিলা দল আয়োজিত মানববন্ধনে রফিকুল ইসলাম এসব কথা বলেন।

মহিলা দল নেত্রী সাবিনা ইয়াসমিনের সভাপতিত্বে এতে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুল মান্নান, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আমানউল্লাহ আমান।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।