সারাদেশে সকাল-সন্ধা হরতাল চলছে

মঙ্গলবার দেশজুড়ে ১৮ দলীয় জোটের সকাল-সন্ধ্যা হরতাল চলছে। নয়াপল্টনে বিক্ষোভ সমাবেশে ককটেল বিস্ফোরণ ও পুলিশের গুলির প্রতিবাদে এই হরতালের ডাক দেয় প্রধান বিরোধী দল বিএনপি।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সোমবার বিকেলে নয়াপল্টনে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে ১৮ দলের সমাবেশে এ  হরতাল কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

এরপর বিএনপি’র কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে দলটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ভাইস-চেয়ারম্যান সাদেক হোসেন খোকা, আলতাফ হোসেন চৌধুরী, বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুক, যুগ্ম মহাসচিব আমানউল্লাহ আমান, মো. শাজাহান, রুহুল কবির রিজভী আহমেদ, দপ্তর সম্পাদক আব্দুল লতিফ জনি, ছাত্রদল সম্পাদক হাবিবুর রশিদ হাবিবসহ অন্তত দুই শতাধিক নেতা-কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ককটেল বিস্ফোরণ ও গুলিতে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলের পূর্বনির্ধারিত সমাবেশ পণ্ডের পর সন্ধ্যা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত নয়াপল্টন কার্যালয়ে অভিযান চালানো হয়।

হরতাল পূর্ব সহিংসতায় সোমবার রাতে রাজধানী, নোয়াখালী ও ময়মনসিংহ জেলায় অন্তত ৬টি গাড়ি পোড়ানো হয়।

রাজধানীর পুরানা পল্টন, বংশাল এবং রামপুরায় তিনটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা।

রামপুরায় ওয়াপদা রোডে এবং পুরানা পল্টনের আজাদ প্রোডাক্টসের সামনে দু’টি গাড়িতে আগুন ধরানো হয়। বংশালের রায় সাহেব বাজারেও একটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয় হরতাল সমর্থকরা।

রাজধানীর এ্যালিফেন্ট রোডে সোমবার বিকাল ৫ টা ২০ মিনিটে তিনটি গাড়ি ভাঙচুর করা হয়।

এছাড়া হরতাল সমর্থকরা নয়া পল্টনের কার্যালয়ের চারপাশে ৪০-৪৫টি হাতবোমার বিস্ফোরণ ঘটায়।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।