লাকসামে আওয়ামী-বিএনপি সংঘর্ষ পুলিশসহ আহত ১৪: গুলিবর্ষণ

বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোটের ডাকা হরতালের প্রথমদিন সোমবারের হরতালের সমর্থনে লাকসামে বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীরা মিছিল বের করলে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীদের সাথে সংঘর্ষ বাঁধে। এ সময় উভয় গ্র“প ইটপাটকেল নিক্ষেপে পৌর বিএনপির সভাপতি সাইফুল ইসলাম হিরুর মার্কেট, দৌলতগঞ্জ রেলষ্টেশন এবং ষ্টেশন সংলগ্ন ৫/৬টি দোকান ও কয়েকটি যানবাহন ভাংচুর করা হয়। তাছাড়া বাইপাস সড়ক, ব্যাংক রোড, চাউল বাজার, উত্তর বাজার, পুরাতন বাস স্ট্যান্ড, রাজঘাট ও ধানবাজারসহ বিভিন্ন স্থানে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ সময় পুলিশসহ অন্তত ১৪ জন আহত হয়েছে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে ৫ রাউন্ড রাবার বুলেট ছোঁড়ে। শহরের বিভিন্ন স্থানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। সংঘর্ষের চিত্র ধারণ করতে গেলে দায়িত্বরত এক সাংবাদিকের ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে এক যুবলীগ কর্মী।
আহতরা হলো- পুলিশ কনস্টেবল চন্দ্রিকা রঞ্জন ত্রিপুরা, ছাত্রদলের আলমগীর, মনির হোসেন, সোহেল, সাইফুল ইসলামসহ ৭/৮ জন এবং আওয়ামী লীগ নেতা তাবারক উল্যাহ কায়েস, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি রফিকুল ইসলাম হিরা, যুবলীগের আবদুল মালেকসহ নেতা ৫/৬ জন। সংঘর্ষ এড়াতে শহরে ১ প্লাটুন অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।