গণহত্যা চালিয়ে প্রধানমন্ত্রী ও তার সরকারের হাত এখন রক্তে রঞ্জিত: ফখরুল

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন বিরোধীদলীয় নেতাকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘শিষ্টাচারবর্হিভূত’ বক্তব্য দিয়েছেন ।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে জাতি হতাশ হয়েছে। খালেদা জিয়া নন, গণহত্যা চালিয়ে প্রধানমন্ত্রী ও তার সরকারের হাত এখন রক্তে রঞ্জিত। জাতির তাদের কাছ থেকে মুক্তি চায়।

সোমবার সন্ধ্যায় নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ১৮ দলীয় জোটের দুই দিনব্যাপী হরতালের প্রথম দিন শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব বলেন, ‘আমরা ভুলে যাইনি বর্তমান প্রধানমন্ত্রী বিরোধী দলে থাকাকালে চট্টগ্রামে বলেছিলেন একটা লাশের বদলে ১০টা লাশ চাই। তার হুকুমে আওয়ামী লীগের কর্মীরা গান পাউডার ছিটিয়ে ৫জনকে হত্যা করেছিল। রক্তপাতের কথা প্রধানমন্ত্রীর মুখে মানায় না।’

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য রাজনৈতিক শিষ্টাচারবর্হিভূত। তার বক্তব্যে নতুন কিছু নেই। তিনি যে রকম বক্তব্য দিয়েছেন, তাতে জাতি হতাশ হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর মত দায়িত্বশীল ব্যক্তির মুখে ওই ধরনের বক্তব্য কেউ আশা করে না।’

তিনি আরও বলেন, বিরোধীদলীয় নেতা কখনও কারও কাছে মুচলেকা দেননি। বরং গত চার বছরে সরকার অনেকের কাছে মুচলেকা দিয়েছে। যার কারণে বিদেশিদের সঙ্গে চুক্তি হলেও সরকার তা প্রকাশ করেনি। বিডিআর বিদ্রোহের ঘটনায় সেনা বাহিনীর তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করেনি।

মির্জা ফখরুল অভিযোগ করে বলেন, আওয়ামী লীগ তার চিরাচরিত নিয়মে রাষ্ট্রীয় যন্ত্রকে ব্যবহার করে হত্যা, গণহত্যা চালিয়ে দেশকে র্টচার জেলে পরিণত করেছে। তারা গণতন্ত্রের সবগুলো পথ বন্ধ করে দিয়েছে। তাদের হাত রক্তে রঞ্জিত।

পরে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব ১৮ দলীয় জোটের ডাকা হরতালের প্রথম দিনের চিত্র তুলে ধরে বলেন, ‘হরতাল পালন করতে গিয়ে সারা দেশে তাদের ২০০ নেতা-কর্মী গ্রেপ্তার হয়েছে। আর পুলিশ ও সরকারি দলের নেতাকর্মীদের হামলায় আহত হয়েছে অন্তত ৪০০ নেতাকর্মী।’

তিনি সোমবারের হরতালের মত মঙ্গলবারের হরতাল স্বতঃস্ফূর্তভাবে পালন করার জন্য দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ-আল নোমান, যুগ্ম মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদ, সহ-দপ্তর সম্পাদক আবদুল লতিফ জনি ও স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।