জনগণকে সঙ্গে নিয়ে এবার সরকার পতনের একদফা আন্দোলন: খালেদা জিয়া

বিরোধী দলীয় নেতা ও বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, “এতদিন শুধু তত্ত্বাবধায়কের দাবিতে আন্দোলন করেছি। এখন সরকার পতনের একদফা আন্দোলন। এ আন্দোলন সফল করতে প্রয়োজনে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে দেশ অচল করে দেয়া হবে। বগুড়ার মাটিডালিতে রোববার দুপুর ১২টার দিকে এক শোকসমাবেশে খালেদা জিয়া এসব কথা বলেন। গত ৩ মার্চ মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর ফাঁসির আদেশের প্রতিবাদে জামায়াতের ডাকা হরতালে পুলিশের গুলিতে নিহতের স্মরণে এ সমাবেশের আয়োজন করা হয়। খালেদা জিয়া নিহতদের স্বজনদের সান্ত্বনা দেন এবং প্রত্যেক পরিবারকে এক লাখ টাকা করে সহায়তা দেন। এরপর তিনি জয়পুরহাটের উদ্দেশে রওয়ানা হবেন।

খালেদা জিয়া অভিযোগ করেন, “সরকার পাখির মতো গুলি করে মানুষ মারছে। দেশবাসীকে সঙ্গে নিয়ে সরকারের এই অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলা হবে।”

একদফার আন্দোলনে বগুড়াবাসীর সহযোগিতা কামনা করেন খালেদা জিয়া।
সোমবার নতুন কর্মসূচি ঘোষণা হবে বলেও জানান তিনি।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে খালেদা বলেন, “জনগণের ওপর চড়াও হবেন না। আসুন, জনতার কাতারে এসে অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলুন। এই সংগ্রামে জনগণের বিজয় হবে। জনগণের সংগ্রাম কোনো গুলি-বোমা দিয়ে ঠেকানো যাবে না।”

পুলিশের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে খালেদা জিয়া বলেন, “জনগণের ওপর গুলি চালাবেন না। এর জন্য আপনাদের জবাবদিহি করতে হবে।”

উল্লেখ্য, পুলিশের গুলিতে নিহতদের স্বজনদের সান্ত্বনা জানাতে খালেদা জিয়া শনিবার বিকেলে বগুড়ার উদ্দেশে রওয়ানা করেন। রাত তিনি বগুড়া সার্কিট হাউজে অবস্থান করেন। রোববার তার জয়পুরহাটে যাওয়ার কথা রয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।