‘সারা দেশে গণহত্যা চালিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনগণের রক্তে নিজের হাত রঞ্জিত করছেন :মির্জা ফখরুল

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিযোগ করে বলেছেন  নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণা করার জন্য সরকার বিরোধী জোটের নেতাকর্মীদের মিথ্যা মামলা দিয়ে জেলে আটক রাখছে । তিনি বলেন, ‘সারা দেশে গণহত্যা চালিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনগণের রক্তে নিজের হাত রঞ্জিত করছেন। তিনি এখন জনসমর্থন হারিয়ে দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন করে আবার ক্ষমতায় আসতে চাইছেন।’

শুক্রবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আমানউল্লাহ আমান ও নির্বাহী কমিটির সদস্য ডা. দেওয়ান সালাহ উদ্দিন বাবুসহ গ্রেপ্তার নেতাকর্মীর মুক্তির দাবিতে ঢাকা জেলা ছাত্রদল আয়োজিত এক মানববন্ধনে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন।

তিনি সরকারের উদ্দেশ্যে বলেন, আটককৃত নেতাদের মুক্তি দিন। অনথায় জনগণের যে আন্দোলন শুরু হয়েছে, তাতে করে খড়-কুটোর মত সরকার ভেসে যাবে।

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগের আচরণ গ্রামের মোড়দের মত। তারা মামলাবাজ সরকার। জনগণের দাবি উপেক্ষা করে তারা ক্ষমতায় থাকতে চাইছে।

‘ষড়যন্ত্রকারীদের সঙ্গে কোনো সংলাপ নয়’ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফের এমন মন্তব্যের জবাবে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব বলেন, ‘বিএনপি নয়, ষড়যন্ত্রকারী তারা।’

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ বিদেশে বলে বেড়ায়- তারা ধর্মনিরপেক্ষ। অথচ একদিকে সংবিধান থেকে আল্লাহর ওপর আস্তা বাদ দিয়েছে, অন্যদিকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম রেখেছে। আসলে তারা ষড়যন্ত্রকারী।

কোনো উস্কানি ছাড়া নিরীহ জনতার ওপর গুলি চালানো মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, দুর্নীতিবাজ ও খুনি সরকারের ক্ষমতায় থাকার আর কোনো নৈতিক অধিকার নেই।

এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন- বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুল মান্নান, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবির খোকন ও সহ-ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু।

 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।