বাগেরহাটে যুবলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১,শিশু গুলিবিদ্ধ

সোমবার রাত ১০টায় বাগেরহাট শহরের নাগেরবাজারে যুবলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে  সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় কালু নামে এক যুবক গুলিবিদ্ধ হন। তাকে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে, পরে রাতে খুলনা এবং মঙ্গলবার সকালে ঢাকা নেয়ার পথে  কালু শেখ (৩২) সকালে মারা গেছে।

এ সময়ে গুলিবিদ্ধ হয় এক শিশু ও মারধরে আহত হন এক যুবলীগ নেতা। বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা এ সময়ে এক যুবলীগ নেতার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ভাঙচুর করে। নিহত কালু সদর উপজেলার কালিয়া এলাকার আসলাম হোসেন বাবুলের ছেলে।

এ সময় বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীদের মারধরে হাসিবুল ইসলাম নামের এক যুবলীগ নেতা আহত হন। ঘটনার পর নাগেরবাজার এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। কালুর মৃত্যুর খবর শহরে ছড়িয়ে পড়লে নতুন করে শহরের নাগের বাজার, রেল রোড, খারদ্বার এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ এলাকাগুলোতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা জানান, বাগেরহাট গণপূর্ত বিভাগের প্রায় পাঁচ কোটি টাকার একটি টেন্ডার দাখিলকে কেন্দ্র করে সোমবার দুপুর থেকে দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া শুরু হয়। পরে সন্ধ্যায় যুবলীগের এক নেতাকে লক্ষ্য করে বিবদমান অপর গ্ররুপের নেতাকর্মীরা গুলি করে। গুলিটি লক্ষ্য ভেদ হয়ে পাশে থাকা এক শিশু সৈকতের দুই উরুতে বিদ্ধ হয়। রাতে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ ও হামলার ঘটনা ঘটে। এ সময় কালু গুলিবিদ্ধসহ যুবলীগ নেতা হাসিবুল আহত হন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।