আওয়ামী ফ্যাসিবাদ রুখে দিতে জেলাবাসীর প্রতি জামায়াতের আহবান

গ্রেফতারকৃত নেতা-কর্মীদের মুক্তি ও তত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা পুনর্বহালের দাবীতে ১৮ দলীয় জোট ঘোষিত ৩৬ ঘন্টার হরতাল সফল করার আহবান জানিয়ে বিবৃতি প্রদান করেছেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও কক্সবাজার জেলা আমীর মুহাম্মদ শাহজাহান, নায়েবে আমীর মাওলানা মোস্তাফিজুর রহমান, সেক্রেটারী জি.এম রহিমুল্লাহ, শহর আমীর অধ্যাপক আবু তাহের চৌধুরী, নায়েবে আমীর এডভোকেট জাফরুল্লাহ ইসলামাবাদী ও সেক্রেটারী সাইদুল আলম। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, বিরুধীদলীয় শীর্ষ নেতৃবৃন্দকে গ্রেফতার করার মাধ্যমে আরো একবার সরকারের ফ্যাসিবাদী চরিত্রের মুখোশ উম্মোচিত হয়েছে। আওয়ামীলীগের কাছে কোন বিরুধীদল সহ্য হয়না। সরকারের অন্যায় ও দূর্নীতির বিরুদ্ধে লিখনির কারণে আমারদেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানকে আজ কারাগারে মৃত্যুর সংগে লড়াই করতে হচ্ছে। এভাবে সংবাদপত্রের কন্ঠরোধ করে দেশকে আবারো বাকশালের দিকে নিয়ে যেতে চায়। ইসলামী তাহযীব তামাদ্দুন সংরক্ষণের দাবীতে এদেশের আলেম সমাজ ও তাওহীদি জনতা আন্দোলন করলে তাদেরকে জামায়াত-শিবির আখ্যা দিয়ে সেখানেও যুদ্ধাপরাধের বিচারের বিরুদ্ধে নাশকতার গন্ধ পায়। মুলতঃ আওয়ামীলীগ এদেশের মানুষকে ধর্মহীন জাতিতে পরিণত করতে চায়। নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, বিরুধীদলের আন্দোলনকে দমন করতে না পেরে সরকার খুন ও গুমের পথ বেছে নিয়েছে। জয়পুরহাটের জামায়াত নেতা নজরুল ইসলাম এবং রাজশাহীর শিবির নেতা মাসুমকে গুম করা হয়েছে। অবিলম্বে তাদেরকে সুস্থাবস্থায় পরিবারের কাছে ফেরত দিতে হবে। অন্যথায় সারাদেশে কঠোর কর্মসূচী দিয়ে সরকারকে বাধ্য করা হবে তাদের ফিরিয়ে দিতে। বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি মুহাম্মদ দেলাওয়ার হোসেনকে ১ম দফা ১৪ দিনের রিমান্ড শেষে ফের ১৮ দিনের রিমান্ডে নিয়ে অমানবিক নির্যাতন করা হচ্ছে। এভাবে খুন, গুম, রিমান্ডে নিয়ে নির্যাতন, আটকের পর থানায় নিয়ে গুলি করে পঙ্গু ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতা হরণ করেও সরকারের শেষ রক্ষা হবে না। সরকারের জনপ্রিয়তা শুন্যের কোটায় বুঝতে পেরে দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন করার ষড়যন্ত্র করছে। দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন এদেশের জনগণ কখনো মেনে নিবে না। খুন, গুম ও রিমান্ডে নামে নির্যাতন বন্ধ করে কেন্দ্রীয় শীর্ষ নেতৃবৃন্দসহ সকল রাজবন্ধীদের মুক্তি প্রদান এবং সংবিধানে কেয়ারটেকার সরকার ব্যবস্থা পূনর্বহাল করতে হবে। উপরোক্ত দাবীতে ৩৬ ঘন্টার হরতাল স্বতঃস্ফুর্তভাবে পালন করার জন্য জেলাবাসীর প্রতি নেতৃবৃন্দ উদাত্ত আহ্বান জানান।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।