১৮ দলের বৃহস্পতিবারের হরতাল স্থগিত

সারা দেশে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোটের ডাকা আগামী বৃহস্পতিবার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল স্থগিত করা হয়েছে। সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে দুর্গত মানুষের পাশে দাঁড়াবার সুযোগ করে দিতে স্থগিত করা হয় হরতাল।

মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে বিরোধী জোট ১৮ দলের নেতা ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া এই ঘোষণা দেন।

বিবৃতিতে বলা হয়, উদ্ধার অভিযান এবং ত্রাণ ও চিকিৎসা কাজে অসুবিধা হবে বলে প্রধানমন্ত্রী বলছেন। তার আহ্বানে সাড়া দিয়ে, মানবতার স্বার্থে, জাতীয় এই ট্রাজেডি বিবেচনায় হরতাল প্রত্যাহার করা হলো।

বিবৃতিতে খালেদা জিয়া বলেন, ‘রানা প্লাজায় ফাটল ধরা ভবনে জোর করে পোশাক কারখানায় হাজার হাজার কর্মীকে ঢুকিয়ে মর্মান্তিক ও পৈশাচিক হত্যাযজ্ঞ ঘটানো হয়েছে। এর প্রতিবাদে ১৮ দলয় এই হরতাল আহ্বান করেছে।’

তিনি বলেন, ‘এ হরতাল ডাকা হয় ঘৃণ্য অপরাধী এবং রাজনৈতিক ও প্রশাসনিকভাবে তাদের মদতদাতা গডফাদারদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করার দাবিতে।

বিরোধীদলীয় নেতা বলেন, ‘নিহতদের পরিবারকে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ এবং আহত ও পঙ্গু হয়ে যাওয়া কর্মীদের পুনর্বাসনের দাবি এবং আহতদের চিকিৎসার ক্ষেত্রে সরকারের সীমাহীন উদাসিন্য, সমন্বয়হীনতা ও ব্যর্থতার প্রতিবাদ এবং ভবিষ্যতে এ ধরনের মর্মান্তিক ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে এ হরতাল ডাকা হয়।’

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে সাড়া দিয়ে, মানবতার স্বার্থে, জাতীয় এই ট্রাজেডির সময়ে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে দুর্গত মানুষের পাশে দাঁড়াবার সুযোগ করে দিতে বৃহস্পতিবার সারা দেশে ১৮ দলের ডাকা সকাল-সন্ধ্যা হরতাল স্থগিত ঘোষণা করছি।’

খালেদা জিয়া বলেন, ‘আমরা যেভাবে জাতীয় স্বার্থে প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে সাড়া দিচ্ছি, আমরা আশা করি জাতির বৃহত্তর স্বার্থে প্রধানমন্ত্রীও সেভাবেই আমাদের আহ্বানে সাড়া দেবেন।’

‘ক্ষমতায় থেকে কারচুপির নির্বাচনের মাধ্যমে আবারও ক্ষমতায় ফিরে আসার লালসা পরিত্যাগ করে প্রধানমন্ত্রী অনতিবিলম্বে নির্দলীয়-নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচনের ব্যবস্থা করে জনগণের ভোটাধিকার নিশ্চিত এবং শান্তিপূর্ণ ও গণতান্ত্রিক উপায়ে ক্ষমতা হস্তান্তরের পথ খুলে দেবেন বলে আমরা আশা করি’ যোগ করেন তিনি।

বিরোধীদলীয় নেতা বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী এব্যাপারে সম্মত হয়ে নির্দলীয়-নিরপেক্ষ সরকারের গঠন প্রক্রিয়া নিয়ে প্রতিনিধিত্বশীল রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে আলোচনার উদ্যোগ নেবেন বলে আমরা আশা করি।’


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।