দৈনিক ওয়াশিংটন টাইমসে খালেদা জিয়া কোনো নিবন্ধ লিখেননি:রিজভী

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন মার্কিন প্রভাবশালী দৈনিক ওয়াশিংটন টাইমসে খালেদা জিয়া কোনো নিবন্ধ লিখেননি , ‘গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে প্রভাবিত করতেই সরকার এই মিথ্যা অপপ্রচার চালাচ্ছে।’

তিনি বুধবার দুপুরে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন।

এক প্রশ্নের জবাবে রিজভী সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আমরা শুরু থেকে এই নিবন্ধের প্রতিবাদ করে আসছি। সুতরাং এ নিয়ে আপনারা (সাংবাদিক) আর বেশি প্যাচানোর চেষ্টা করবেন না।’

এ সময় তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘সরকার ষড়যন্ত্রমূলকভাবে ওয়াশিংটন টাইমসকে দিয়ে খালেদা জিয়ার নামে নিবন্ধ ছাপিয়েছে। নিবন্ধের সই খালেদা জিয়ার নয়। এর সঙ্গে  খালেদার জিয়ার কোনো সম্পর্ক নেই। এটি মিথ্যা, বানোয়াট ও জালিয়াতি।’

রিজভী প্রশ্ন রেখে বলেন, ‘বারাক ওবামা কী কান কথা শোনেন? সুতরাং তিনি খালেদার জিয়ার নিবন্ধন লেখার কারণে বাংলাদেশের জিএসপি সুবিধা বাতিল করবেন।’

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমরা প্রথম থেকেই এর প্রতিবাদ জানিয়ে আসছি, এখনো জানাচ্ছি।’

‘নিবন্ধ খালেদার জিয়ারই’ ওয়াশিংটন টাইমসের নির্বাহী সম্পাদক ডেভিট এস  জ্যাকসনের এমন মন্তব্যের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে বিএনপির এই যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানের পক্ষে সব কিছুই করার সম্ভব। তবে আমরা এটিকে পাত্তা দিচ্ছি না।’

জ্যাকসনের বক্তব্যের প্রতিবাদ জানাবেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘প্রতিবাদলিপি পাঠাবেন কিনা তা দলের জ্যেষ্ঠ নেতারা সিদ্ধান্ত নিবেন।’

বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে নির্বাচনী পর্যবেক্ষণ সেল গঠন করে নির্বাচনী যেসব বিধান রয়েছে, তা একে একে লঙ্ঘন করা হচ্ছে। ডিসি, টিএনও ও  প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের গাজীপুর নির্বাচনের কাজে সরকার ব্যবহার করছে।’

তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘সরকারের তলপীবাহক ও এজেন্ডা হিসাবে বিশেষ সংস্থার  লোকজন গাজীপুরে আওয়ামী সমর্থিত প্রার্থী আজমত উল্লাহ খানের পক্ষে কাজ করছে। অথচ এটা তাদের এখতিয়ারবর্হিভূত।’

রিজভী বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জের মেয়র আইভি রহমান দায়িত্বশীল জায়গা থেকে নির্বাচনী  প্রচারণায় অংশ নিচ্ছেন। নতুন মেয়রদের গেজেট প্রকাশ না হলেও ইসি বলছে, নতুন  মেয়রদের নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ না নেওয়াই ভালো।’

‘চার সিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীদের ভরাডুবি হওয়ার পরে সরকার এখন   ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছে। তারা গাজীপুর নির্বাচনকে প্রভাবিত করার প্রচেষ্টা চালাচ্ছে’ যোগ করেন তিনি।

রিজভী আরো বলেন, ‘আশা করি, সরকার তার পথ থেকে সরে আসবে। জনগণ যেন নির্বিঘ্নে ভোট দিতে পারে সেই ব্যবস্থা নিবে। যদি সরকার তা না করে, তাহলে তাদের অনেক বড় খেসারত দিতে হবে।’

তিনি গাজীপুর সিটি নির্বাচনে সেনা মোতায়েন করতে আবারো সরকার ও নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহ্বান জানান।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির ধর্মবিষয়ক সম্পাদক মাসুদ আহমেদ  তালুকদার, যুবদলের সিনিয়র সভাপতি আবদুস সালাম আযাদ প্রমুখ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।