কক্সবাজারে স্বতঃস্ফূর্ত হরতাল পালিত

কেন্দ্রীয় কর্মসূচির আলোকে রোববার কক্সবাজারে শহরসহ বিভিন্ন স্থানে খন্ড খন্ড বিক্ষোভ মিছিল ও পিকেটিংয়ের মধ্যদিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে পালিত হয়েছে জামায়াতে ইসলামীর শীর্ষ নেতা আবদুল কাদের মোল্লার বিচারিক হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে সকাল সন্ধ্যার আহূত হরতাল। জেলার কোথাও কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। ভোর থেকে চলেনি দূরপাল্লার পরিবহন। বাস টার্মিনাল থেকে কোন যানবাহন গন্তব্যের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়নি। অফিস, আদালত ও ব্যাংক-বীমার দাফতরিক কার্যক্রমে ছিল স্থবিরতা।

এদিকে হরতালের সমর্থনে কক্সবাজারে এক বিক্ষোভ মিছিল বের করে শহর জামায়াতে ইসলামী। প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে বিশাল এ মিছিল সমাবেশে মিলিত হয়। শহর জামায়াতের সেক্রেটারি সাইদুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সহকারী সেক্রেটারি আবদুল্লাহ আল ফারুক, ইসলামী ছাত্রশিবিরের কক্সবাজার শহর সভাপতি আ.ন.ম হারুন, সেক্রেটারি জাহেদুল ইসলাম নোমান, জামায়াত নেতা নুরুল আমিন, মোজাহেরুল ইসলাম মাসুম, আবদুর রশিদ ও শ্রমিক নেতা আমিনুল ইসলাম হাসান।

একইভাবে চকরিয়ায় পৌর জামায়াতের সেক্রেটারি জননেতা আরিফুল কবিরের নেতৃত্বে শহরের বিভিন্ন স্থানে হরতালের সমর্থনে কয়েক দফা বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে শহর ছাত্রশিবিরের সভাপতি আজিজুর রহমান সহ জামায়াত ইসলামী ও ইসলামী ছাত্রশিবিরের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। তাছাড়া পৌর শহরের চিরিঙ্গায় হরতাল সমর্থকরা টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ ও বেশ’কটি গাড়ি ভাংচুর করার খবর পাওয়া গেছে। একইসময় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে পুলিশ ও হরতাল সমর্থকদের মাঝে।

অন্যদিকে ঈদগাঁওতে উপজেলা ছাত্রশিবিরের সভাপতি লায়েক বিন ফাজেলের নেতৃত্বে স্থানীয় জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা একাধিক পয়েন্টে মিছিল ও পিকেটিংয়ের মাধ্যমে সড়ক অবরোধ করে রাখে। এছাড়া স্বতঃস্ফূর্ত জনতার সমর্থনে সীমান্ত উপজেলা উখিয়া ও টেকনাফ, পেকুয়া, কুতুবদিয়া মহেশখালীসহ বিভিন্ন এলাকায় সকাল-সন্ধ্যার এ হরতাল কর্মসূচি পালিত হয়।

এদিকে এক বিবৃতিতে জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও কক্সবাজার জেলা আমীর মুহাম্মদ শাহজাহান এবং জেলা সেক্রেটারি জিএম রহিমুল্লাহ সর্বাত্মকভাবে হরতাল সফল করায় জেলাবাসীকে আন্তরিক মুবারকবাদ ও অভিনন্দন জানিয়েছেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।