সংকট নিরসনের আলোচনায় অনিশ্চয়তা

রাজনৈতিক সংকট নিরসনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ এবং বিরোধীদল বিএনপির মধ্যে আলোচনা বা সংলাপ প্রশ্নে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।

আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতা এবং মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, ৫ জানুয়ারি নির্বাচনের আগে বিরোধীদলের সাথে সমঝোতার সম্ভাবনা নেই বলে তারা মনে করছেন।

তোফায়েল আহমেদ বলছিলেন, “ তফসিল হয়ে গেছে। মনোনয়নপত্র দাখিল করা হয়েছে। অনেকেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হচ্ছে। এ যাত্রায় ফলপ্রসূ আলোচনা করার কোনো সম্ভাবনা আমি দেখি না।”

তিনি আরো বলেছেন, “ বিএনপির দেয়া প্রস্তাব আমরা দলের নীতিনির্ধারণী ফোরামে আলোচনা করেছি। বিএনপিও হয়তো আমাদের প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা করেছে। কিন্তু এরপর বিএনপিও আলোচনার জন্য যোগাযোগ করেনি। সত্যি কথা কথা বলতে, আমরাও যোগাযোগ করিনি। আসলে ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের আগে আলোচনা করে কোনো ফলাফল পাওয়া যাবে , এটা আমার বিশ্বাস হয় না।”

ওদিকে আজই বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এক বিবৃতিতে বলেছেন, তারা দু’পক্ষ এর আগে তিনি যে আলোচনা করেছেন, এরপর এখন সরকারের দিক থেকে আলোচনার দিনক্ষণ তাদের আর জানানো হচ্ছে না।

এদিকে, বর্তমান পরিস্থিতিতে করণীয় ঠিক করতে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোটের নেতারা আজ বৈঠক করছেন।

৫ জানুয়ারির নির্বাচনের আগে আওয়ামী লীগ এবং বিএনপির মধ্যে সমঝোতা সম্ভব কি-না এখন সে বিষয়েই নতুন বিতর্ক দেখা দিয়েছে রাজনৈতিক অঙ্গনে।

আওয়ামী লীগের দুজন সিনিয়র নেতা মন্তব্য করেছেন যে দশম সংসদ নির্বচন নিয়ে বিরোধী দলের সঙ্গে আলোচনার সুযোগ নেই। ফলে আলোচনা হতে হবে পরবর্তী নির্বাচন নিয়ে।

আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতা ও মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বললেন ৫ই জানুয়ারির নির্বাচনের আগে সমঝোতার কোন সম্ভাবনা তারা দেখছেননা। বিএনপির সঙ্গে তিন দফা আলোচনায় আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দলে মি. আহমেদ ছিলেন।

সপ্তাহ খানেক আগে জাতিসংঘের সহকারী মহাসচিব অস্কার ফার্নান্দেজ তারানকো ঢাকায় এসেছিলেন। তখন তার উপস্থিতিতেই আওয়ামী লীগ এবং বিএনপি নেতারা আলোচনায় বসেছে। সর্বশেষ দু দলের মধ্যে আলোচনা হয়েছে গত শুক্রবার।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর আজ এক বিবৃতিতে বলেছেন শুক্রবারের বৈঠকে দু পক্ষ পরস্পরের কাছে স্ব স্ব প্রস্তাব দিয়েছিল।

আওয়ামী লীগ নেতারা বিএনপির দেয়া প্রস্তাব নিয়ে তাদের নীতি নির্ধারনী ফোরামে আলোচনার পর আবার বৈঠকে বসতে চেয়েছিলেন।

কিন্তু এখনো পর্যন্ত আওয়ামী লীগ আর কিছু জানায়নি বলে মি. আলমগীর উল্লেখ করেছেন।
তোফায়েল আহমেদ অবশ্য বলেছেন সংবিধানের বাইরে সমঝোতার কোনো সুযোগ তারা দেখছেন না। সে কারণেই কোনো পক্ষ থেকেই আলোচনার উদ্যোগ নেই।

তবে বিএনপি নেতা আলমগীর তার বিবৃতিতে বলেছেন এখনো দশম সংসদ নির্বাচন নিয়ে আলোচনার মাধ্যমে সংকট নিরসনের সুযোগ রয়েছে এবং সরকার তাতে এগিয়ে আসবে বলে তারা মনে করেন।

দলটির আরেকজন সিনিয়র নেতা নজরুল ইসলাম খান বলেছেন তারা দশম সংসদ নির্বাচন নিয়েই তাদের দাবিতে সমাধান চান। সূত্র: বিবিসি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।