ছাত্রদলের সভাপতি জুয়েল চার দিনের রিমান্ডে

জাতীয়বাদী ছাত্রদলের সভাপতি আবদুল কাদের ভুঁইয়া জুয়েলকে পল্টন থানার হেফাজতের দুটি মামলায় আদালত চার দিনের রিমান্ডে নেয়ার অনুমতি দিয়েছে। বৃহস্পতিবার পল্টন থানার দুই মামলার বিশ দিনের রিমান্ডে আবেদন করে মহানগর ম্যাজিস্ট্রেট মোস্তাফিজুর রহমান আদালতে হাজির করে। পল্টন থানার দুইটি মামলায় ১০দিন করে ২০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে মামলার তদান্তকারী কর্মকর্তারা। আসামির আইনজীবীরা রিমান্ড বাতিল করে জামিনের আবেদন করেন আদালতে ।

আদালত উভয় পক্ষের শুনানি শেষে জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে দুটি মামলায় দুই দিন করে চার দিনের পুলিশ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

মামলার এজাহার হতে জানা যায়, গত ৫ মে ১৩ দফা আদায়রে জন্য হেফাজতের সঙ্গে জামায়াত ও ইসলামী ছাত্রশিবিরের নেতার্কমীরা যুক্ত হয়ে গত ৫ মে অবরোধ শেষে মতিঝিলে অবস্থান নিতে থাকে। এ সময় তারা মিতিঝিলের ও ইত্তেফাক মোড় থেকে দৈনিক বাংলার মোড় ও ফকিরাপুল এলাকায় জঙ্গি কায়দায় বাঁশের লাঠি, কাঠের লাঠি, লোহার রড ও দেশীয় অস্ত্র, আগ্নেয়াস্ত্রসহ ইট ও বোমা নিক্ষেপ করে যান চলাচলে বাধা ও বোমা ফাটিয়ে ত্রাসের সৃষ্টি করে।

তারা বিভিন্ন ভবন ও গাড়ি ভাঙচুর এবং ভবনে, গাড়িতে ও ফুটপাতের বিভিন্ন দোকানে অগ্নিসংযোগ করে। এক র্পযায়ে তারা মতিঝিলের শাপলা চত্বরে অবস্থান নেয়।

পুলিশ তাদের বারবার চলে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করলেও তারা পুলিশের বাধা নিষেধ উপেক্ষা করে  ।

গত ৫ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার রাত আনুমানিক দুইটার দিকে আবদুল কাদের ভুঁইয়া জুয়েলকে উত্তরার একটি বাসা থেকে আটক করে গোয়ন্দো পুলিশ। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য হান্নান শাহ ,যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর  ও জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য বেলাল আহমেদ এই মামলার আসামি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।