প্রহসনের নির্বাচনে নৌকা প্রতীকেও হারার ভয়ে প্রাণ নাশের হুমকি

‘দ্রুত নির্বাচনী মাঠ ত্যাগ করে নির্বাচন থেকে সরে না গেলে আমাকে ও আমার পিতা শিল্পপতি ইয়াহিয়াসহ পুরো পরিবারকেও হত্যা করা হবে। আর দোষ চাপিয়ে দেয়া হবে বিএনপির জামায়াতের উপর। প্রতিদ্বন্ধি সরকার দলীয় প্রার্থী বদি ও তার ক্যাডারবাহিনীর কারণে আমরা নিরাপত্তাহীন’ এভাবেই কক্সবাজার-৪ উখিয়া-টেকনাফ সংসদীয় আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী তাহা ইয়াহিয়া তার অসহায়ত্বের কথা সাংবাদিকদের সামনে উপস্থাপন করেন।
এমনকি প্রার্থী তাহা‘কে চড় থাপ্পর ও বুকে পিস্তল ঠেকিয়ে হত্যার হুমকি দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন প্রার্থী (তাহা) নিজেই। হুমকি দাতা প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী সরকার দলীয় এমপি আব্দুর রহমান বদি ও তার ক্যাডার বাহিনী। এব্যাপারে প্রার্থী তাহা ইয়াহিয়া ৫ জনের নাম উল্লেখ করে টেকনাফ থানায় জিডি করেছেন এবং নির্বাচন কমিশনেও অভিযোগ প্রেরণ করেছেন।

কক্সবাজারের একটি অভিজাত হোটেলে সোমবার বেলা ১১টায় এক প্রেস ব্রিফিং-এ এসব অভিযোগ করেন তাহা ইয়াহিয়া।

তিনি আরও বলেন, প্রথমবার সরাসরি তার ব্যক্তিগত মোবাইলে ফোন করে নির্বাচন থেকে সরে যাওয়ার হুমকি দেন এমপি বদি। ১৮ ডিসেম্বর রাতে এ ব্যাপারে একটি সাধারণ ডাইরী করেন তিনি। এর পর থেকে দফায় দফায় এমপি বদি ও তার ক্যাডার বাহিনী তাকে নির্বাচন থেকে সরে যাওয়ার জন্য হুমকি দিয়ে আসছে। তিনি বলেন, সর্বশেষ ২৯ ডিসেম্বর দুপুরে টেকনাফ সাবরাং ইউনিয়নের জালিয়া পাড়া এলাকায় গণ-সংযোগকালে আব্দুর রহমান বদির নির্বাচনী গাড়ী (ঢাকা মেট্রো-এল এ -২২৯) ও কয়েকটি মটর সাইকেল যোগে এসে তাকে ও তার পিতাকে প্রাণ নাশের হুমকি দেয়। সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা অস্ত্র উচিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা বন্ধ করে টেকনাফ ছেড়ে চলে যেতে বলে। সন্ত্রাসীদের বাধার মুখে তাহা ইয়াহিয়া  ওই এলাকা ত্যাগ করে পৌরসভা এলাকায় পূর্ব নির্ধারিত জনসভায় যোগ দিতে আসেন। সন্ত্রাসীরাও তাকে অনুসরণ করে পৌর এলাকার জনসভাস্থলে আসে। তাকে বক্তব্য দিতে বাধা দেয়। এমনকি সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে তার বুকে অস্ত্র ঠেকিয়ে  হুমকি দিয়ে বলে প্রাণে বাঁচতে চাইলে এখনই যেন পিতা-পুত্র নির্বাচনী প্রচারণা বাদ দিয়ে চলে যায়। নুর মোহাম্মদ প্রকাশ ‘লাস্ট টিপ’ নামে একজন বুকে অস্ত্র ঠেকিয়ে বলেন, ‘তুমি এমপি হলে আমাদের ইয়াবা ব্যবসা বন্ধ হয়ে যাবে।’

পেশী শক্তি ও অস্ত্রের মুখে জিম্মি হয়ে তিনি ওই এলাকা ত্যাগ করেন বলে জানান। এ দিন তিনি আরও একটি সাধারণ ডায়েরী করেন।
এক প্রশ্নের জবাবে তাহা বলেন, তিনি অভিযোগ করেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কোন সহযোগিতা পাচ্ছেন না। পুলিশ সুপার আজাদ মিয়া তাকে জানিয়েছে, বদি আপনার বড় ভাই, সহযোগিতার প্রয়োজন হলে তাকে বলেন। তিনি সাহায্য করবেন।

এমপি প্রার্থী তাহা প্রশাসনের নিরপেক্ষ ভূমিকা ও সুষ্টু নির্বাচনের পরিবেশ তৈরির জন্য প্রশানের কাছে আহবান জানান।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।