খালেদা আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে নির্বাচনে আসতে বিদেশীদের কাছে ধর্ণা দিচ্ছেন

বিএনপি চেয়ারপারসন ও বিরোধী দলীয় নেতা  বেগম খালেদা জিয়া আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে এখন নির্বাচনে আসার জন্য বিদেশীদের দুয়ারে দুয়ারে ধর্ণা দিচ্ছেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এবং বন ও পরিবেশ মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউর খদ্দর মার্কেটের সামনে বঙ্গবন্ধু একাডেমি আয়োজিত “বিএনপি-জামায়াতের অবৈধ কর্মসূচির প্রতিবাদে” এক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, “বিএনপি গণতন্ত্রের অভিযাত্রার নামে সন্ত্রাসীর অভিযাত্রা পালনে ব্যর্থ হয়ে বিদেশীদের কাছে ধর্ণা দিচ্ছে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য। কিন্তু দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ট্রেন আর মাত্র  দু’দিন পর প্লাটফর্মে পৌঁছে যাবে। সুতরাং এই ট্রেনে ওঠার আর কোনো সুযোগ নেই।”

বিরোধী দলকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, “প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে সাড়া দিয়ে দশম সংসদ নির্বাচনের পর একাদশ নির্বাচনে অংশগ্রহনের প্রস্তুতি গ্রহণ করুন। একাদশ নির্বাচনের ট্রেন মিস করলে আপনাদের অবস্থা হবে মওলানা ভাসানীর ন্যাপ ও মুসলিম লীগের মতো।” এই দল দুটি কতটি ভাগে বিভক্ত হয়েছে এর জন্য গবেষণা করতে হবে বলেও জানান তিনি।

নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “বিরোধী দল নির্বাচন ঠেকাতে অনেক চেষ্টা করেও পারেনি। নির্বাচন ঠেকাতে গিয়ে তারা নিজেরাই এখন ঠেকে গেছে। তাই খালেদা জিয়া কাণ্ডজ্ঞানহীন হয়ে পড়েছেন।”

হাছান মাহমুদ বলেন, “সাংবিধানিক ধারা রক্ষায় আগামী ৫ জানুয়ারি নির্বাচন হবে। কোনো ষড়যন্ত্রই কাজে আসবে না।” তিনি এই ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে দলীয় নেতাকর্মীদের মার্চ মাস পর্যন্ত মাঠে থাকার আহ্বান জানান।

হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের ঢাকা মহানগর সভাপতি চিত্ত রঞ্জন দাসের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য দেন সাম্যবাদী দলের ঢাকা মহানগর সাধারণ সম্পাদক হারুন চৌধুরী, কৃষক লীগের সহ-সভাপতি এম এ করিম, মুক্তিযোদ্ধা প্রজম্ম লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আসাদ্দুজ্জামান দূর্জয়, শ্রমিক লীগের ঢাকা মহানগর সাধারণ সম্পাদক ইনসুর আলী প্রমুখ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।