চট্টগ্রাম মহানগর জামায়াতের আমির-সেক্রেটারি আটক, বুধবার হরতাল

চট্টগ্রাম মহানগর জামায়াতের আমির ও সাবেক এমপি আ ন ম শামসুল ইসলাম এবং সেক্রেটারি জেনারেল নজরুল ইসলামসহ ২১ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার বিকেলে নগরীর দেওয়ানবাজারে পুকুর লাইনে দলীয় কার্যালয়ে বৈঠক থেকে তাদের আটক করা হয়।

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম মহিউদ্দিন সেলিম জানান, শামসুল ইসলামসহ আটককৃতরা জামায়াত ‘কার্যালয়ে গোপন বৈঠক’ করছিলেন।

আটককৃতদের বিরুদ্ধে একাধিক ‘নাশকতার’ মামলা রয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি।

সম্প্রতি দেশজুড়ে গণগ্রেপ্তারের অংশ হিসেবে ইতোমধ্যে বিএনপি এবং জামায়াত-শিবিরের কয়েকশ’ নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে। জামায়াত নেতাদের সম্ভাব্য রায় ঘিরে এই গণগ্রেপ্তার চলছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

 

প্রতিবাদে বৃহত্তর চট্টগ্রামে আগামি বুধবার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডেকেছে জামায়াত।

এছাড়া মঙ্গলবার সকল উপজেলা ও থানায় বিক্ষোভ সমাবেশেরও কর্মসূচি ঘোষণা করেছে দলটি।

নগর জামায়াতের নায়েবে আমির মো.আহসানউল্লাহ দলের এসব কর্মসূচি নিশ্চিত করে জানান, নগর জামায়াতের ২১ জন গুরুত্বপূর্ণ নেতাকে আটকের প্রতিবাদে চট্টগ্রাম জেলা, পার্বত্য চট্টগ্রাম, কক্সবাজারসহ বৃহত্তর চট্টগ্রামে বুধবার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডাকা হয়েছে।

সোমবার বিকেল ৫টার দিকে নগরীর কোতয়ালী থানার দেওয়ানবাজার এলাকায় নগর জামায়াতের কার্যালয়ে সাংগঠনিক বৈঠক করার সময় তাদেরকে আটক করে পুলিশ।

পুলিশ সেখান থেকে শামসুল ইসলাম ও নজরুল ইসলামসহ ২১ জনকে আটক করে কোতয়ালী থানায় নিয়ে যায়। এছাড়া নগর জামায়াতের কার্যালয়ে তল্লাশিও চালিয়েছে পুলিশ।

এদিকে, কোতোয়ালি থানার ওসি এ কে এম মহিউদ্দিন সেলিম জানান, শামসুল ইসলামসহ আটককৃতরা জামায়াত ‘কার্যালয়ে গোপন বৈঠক’ করছিলেন।

আটককৃতদের বিরুদ্ধে একাধিক ‘নাশকতার’ মামলা রয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি।

সম্প্রতি দেশজুড়ে গণগ্রেপ্তারের অংশ হিসেবে ইতোমধ্যে বিএনপি এবং জামায়াত-শিবিরের কয়েকশ’ নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে। জামায়াত নেতাদের সম্ভাব্য রায় ঘিরে এই গণগ্রেপ্তার চলছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।