নিরাপত্তাজনিত কারনে আদালতে যাচ্ছেন না খালেদা জিয়া

খালেদা জিয়া আজ নিরাপত্তাজনিত কারণে আদালতে যাচ্ছেন না। ২৫ ফেব্রুয়ারি জারি করা গ্রেফতারি পরোয়ানা প্রত্যাহার ও জামিন বহাল রাখার আবেদন করেছেন তার আইনজীবীরা। একই সঙ্গে এ মামলায় তারেক জিয়ার শরীরে আদালতে হাজিরের বিষয়ে সময় বাড়ানোর আবেদন করা হয়েছে।

রাজধানীর বকশিবাজারে আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত বিশেষ জজ আদালতে বুধবার সকালে এ বিষয়ে আবেদন করেন খালেদার আইনজীবীরা। জিয়া অরফানেজ ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় মঙ্গলবার শুনানির দিন ধার্ য ছিল।

এর আগে গত ২৫ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আদেশ দেন আদালত। গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির পর এ নিয়ে রাজনৈতিক অঙ্গনসহ মানুষের মধ্যে চলছে উত্তেজনা।

খালেদা জিয়ার বুধবার আদালতে হাজির হওয়া-না হওয়া সম্পর্কে তার আইনজীবী মাসুদ আহমেদ বলেন, খালেদা জিয়া তিনবারের প্রধানমন্ত্রী। তার বিরুদ্ধে যে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে তাতে কিছু ভুলত্রুটি রয়েছে। সেগুলো সংশোধনের প্রয়োজন রয়েছে।

আইনজীবী আরো বলেন, দেশে এখন রাজনৈতিক কর্মসূচি চলছছে। তাতে খালেদা জিয়ার নিরাপত্তার সংকট রয়েছে। নিরাপত্তা নিশ্চিত হলেই কেবল তিনি আদালতে হাজির হবেন। খালেদার নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবি জানান তিনি।

মাসুদ আহমেদ আরো জানান, খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর স্মরণে বুধবার বিএনপির চেয়ারপারসনের গুলশানের কার্যানলয়ে চেহলামের আয়োজন করা হয়েছে। এদিকে খালেদা জিয়ার আদালতে হাজির হওয়া না-হওয়া কিংবা গ্রেফতারি পরোয়ানা নিয়ে মানুষের মধ্যে এক ধরনের আতঙ্ক দেখা গেছে। বুধবার সকাল থেকে অন্যান্য দিনের চেয়ে রাজধানীতে যানবাহন চলাচল কম চলছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।