সুপ্রিম কোর্ট বারে বিএনপি-জামায়াতপন্থীদের বিশাল জয়

সুপ্রিম কোর্ট বার নির্বাচনে বিএনপি-জামায়াতপন্থী আইনজীবীরা বিপুল বিজয় লাভ করেছেন। নির্বাচনে মোট ১৪টি পদের মধ্যে সভাপতি ও সম্পাদকসহ বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত প্যানেল ৯টিতে জয়লাভ করেছেন।

 

 

এ নিয়ে টানা তৃতীয়বার সভাপতি ও সম্পাদক পদে জয়লাভ করল বিএনপি-জামায়াতপন্থী প্যানেল। অন্যদিকে একজন সহ-সভাপতি ও একজন সহ-সম্পাদকসহ পাঁচটি পদে জয় পেয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দল সমর্থিত সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ।

 

মঙ্গলবার ভোরে নির্বাচন পরিচালনা উপ-কমিটির প্রধান মো. হারুন অর রশিদ এই ফল ঘোষণা করেন। ঘোষিত ফলে দেখা যায়, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা খন্দকার মাহবুব হোসেন ১,৮০৬ ভোট পেয়ে নীল প্যানেল থেকে সভাপতি পদে নির্বাচিত হয়েছেন।

 

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের প্রার্থী ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন পেয়েছেন ১,৬২৭ ভোট।

 

সাবেক সংসদ সদস্য ও বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মাহবুবউদ্দিন খোকন ১,৯৩৭ ভোট পেয়ে নীল প্যানেল থেকে সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মোমতাজ উদ্দিন আহমেদ মেহেদি  পেয়েছেন ১,৫২৯ ভোট।

 

সহ-সভাপতি ও সহ-সম্পাদকের পদগুলোতে দুই প্যানেল থেকেই একজন করে নির্বাচিত হয়েছেন। সরকার সমর্থকদের সমন্বয় পরিষদের প্যানেল থেকে  আবুল খায়ের সহ-সভাপতি পদে ১,৭১১ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন। আর বিএনপি সমর্থক প্রার্থী এএসএম মোক্তার কবির খান ১,৬৯৬ ভোট পেয়ে আরেক সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন।

 

সহসম্পাদক পদে সরকার সমর্থক মো. দেলোয়ার মোস্তফা চৌধুরী (মধু) ১,৬৪৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। সমিতির এই পদে আরেকজন এসেছেন জাতীয়তাবাদী প্যানেল থেকে- মাজেদুল ইসলাম পাটওয়ারি উজ্জ্বল ১,৮০৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।

 

জাতীয়তাবাদী প্যানেলের প্রার্থী শওকত আরা বেগম দুলালী  ১,৮৫২ ভোট পেয়ে কোষাধ্যক্ষ পদে নির্বাচিত হয়েছেন। সদস্য পদে বিএনপি-জামায়াত জোট সমর্থকদের প্যানেলের প্রার্থীরা হলেন-শামীমা সুলতানা দিপ্তী (২,০৪৯), আনোয়ারুল ইসলাম শাহিন (১,৮৩৯), মির্জা আল মাহমুদ (১,৭৬৫) ও মো. জসিম সরকার (১,৬৩৮)।

 

সমন্বয় পরিষদের প্যানেল থেকে মহিউদ্দিন শামীম (১,৭৭৩),  একেএম দাউদুর রহমান মিনা (১,৬৮৯), অমিত দাশগুপ্ত  (১,৬৮৩) ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। গত দুটি নির্বাচনেই সমিতির ১৪টি পদের মধ্যে ১৩টিতে জয়ী হয় বিএনপি-জামায়াত সমর্থকরা।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।