তাবিথ আউয়ালকে নেতৃত্বে আনার চিন্তাভাবনা বিএনপির

সরকারবিরোধী আন্দোলন ও সিটি নির্বাচনে প্রত্যাশিত ভূমিকা পালনে ব্যর্থতার কারণে আবারো পুনর্গঠন করা হবে ঢাকা মহানগর বিএনপি। সূত্র জানায়, দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের নেতৃত্বাধীন আহ্বায়ক কমিটি ভেঙে দেয়া হতে পারে। এক্ষেত্রে তরুণ নেতৃত্বের সমন্বয়ে গঠন করা হবে নতুন কমিটি।

 

নতুন কমিটিতে ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি ও বর্তমান কমিটির সদস্য সচিব হাবিব-উন-নবী খান সোহেলকে আহ্বায়ক ও সদ্য সমাপ্ত ঢাকা উত্তর সিটিতে বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালকে সদস্য সচিব করার চিন্তাভাবনা চলছে।

 

একটি কমিটি ভেঙে দক্ষিণ ও উত্তর সিটিতে দুটি কমিটি গঠনের কথাও ভাবা হচ্ছে। শেষ পর্যন্ত দুটি কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত হলে দক্ষিণে হাবিব-উন-নবী খান সোহেল ও উত্তরে তাবিথ আউয়ালের নেতৃত্বে কমিটি হতে পারে।

 

রাজনীতিতে কার্যত নতুন মুখ হলেও মিতভাষী তাবিথ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সবার নজর কেড়েছেন। সরকারি দলের ব্যাপক জালিয়াতির কারণে সিটি করপোরেশন নির্বাচন বিএনপি বর্জন করলেও দলটির নেতাকর্মীরা মনে করছেন, সুষ্ঠু নির্বাচন হলে মির্জা আব্বাস ও মনজুল আলমের পাশাপাশি বিপুল ভোটে জয়ী হতেন দেশের আলোচিত ব্যবসায়ী আবদুল আউয়াল মিন্টুর পুত্র তাবিথ আউয়াল।

 

এদিকে বিএনপির নিষ্ক্রিয় অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন, অন্যান্য মহানগর, জেলা ও উপজেলা কমিটিও সাহসী, সক্রিয় ও তরুণ নেতাদের সমন্বয়ে নতুন কমিটি গঠনের উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জামিনে মুক্তি পাওয়ার পরপর দল পুনর্গঠনের উদ্যোগ নেওয়া হবে।

 

সূত্র জানায়, তিন মাসের আন্দোলনে কাঙ্খিত শক্তি প্রদর্শন করতে না পারা এবং ডিসিসি নির্বাচনে বিএনপির সাংগঠনিক  দুর্বলতায় ক্ষুব্ধ খালেদা জিয়া। তিনি দলের কয়েকজন সিনিয়র নেতাকে বলেছেন, শিগগির দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের জামিনে মুক্তি পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ফখরুল ইসলাম মুক্তি পাওয়ার পর পরই দ্রুত দল পুনর্গঠনের কাজ শুরু করবেন।

 

তবে বিএনপির মুখপাত্র ড. আসাদুজ্জামান রিপন বলেছেন, ঢাকা মহানগরসহ দল পুনর্গঠনের ব্যাপারে এখনও আনুষ্ঠানিক কোনো আলোচনা হয়নি। এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে হলে দলের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠক ডাকতে হবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।