রাজধানীর বাড্ডায় গুলিতে আহত স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার মৃত্যু

 বৃহ্স্পতিবার রাতে রাজধানীর বাড্ডায় যুবলীগের গোলাগুলির ঘটনায় গুলিবিদ্ধ স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মাহবুবুর রহমান গামা (৪০) মারা গেছেন।একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার সকালে তিনি মারা যান।

নিহত গামা স্বেচ্ছাসেবক লীগের ঢাকা মহানগর উত্তরের সহ-সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক। সোনার বাংলা স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র নামে তার একটি এনজিও রয়েছে।

 
বাড্ডা থানার ওসি এমএ জলিল খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘গুলশানের ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার সকাল পৌনে ১০টার দিকে গামা (৪০) মারা গেছেন।’

এ নিয়ে বাড্ডার আদর্শনগর পানির পাম্পের কাছে গোলাগুলির ঘটনায় ক্ষমতাসীন দলের দুই নেতাসহ তিনজন মারা গেলেন। বৃহস্পতিবার রাতে সামছু মোল্লা (৫৩) ও ফিরোজ আহমেদ মানিক (৪৫) নামে দুইজন নিহত হন।

এদের মধ্যে সামছু মোল্লা ঢাকার ৬ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। আর মানিক উত্তর বাড্ডার এইচ এ এফ নামের একটি বেসরকারি হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক। ঘটনাস্থলের কাছেই তার বাসা।

এ ঘটনায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি গুলিবিদ্ধ সালামের অবস্থাও আশঙ্কাজনক বলে চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন। সালাম বাড্ডা থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের স্থানীয় পর্যায়ের নেতা বলে জানা গেছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বৃহস্পতিবার রাতে আদর্শনগর পানির পাম্পের কাছে আড্ডা দিচ্ছিলেন ক্ষমতাসীন দলের বেশ কয়েকজন নেতা। এ সময় তাদের কয়েকজনের উপর গুলিবর্ষণ করে দুর্বৃত্তরা।

তবে কী কারণে এই হামলা হয়েছে এবং কারা এই হামলা চালিয়েছে, সে বিষয়ে কোনো তথ্য জানা যায়নি।

ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসবক লীগের সহ-সভাপতি মারুফ আহমেদ মানিক বলেন, তারা ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসের কর্মসূচি নিয়ে আলোচনা করছিলেন। ওই সময় অতর্কিত হামলা হয়।

তিনি বলেন, ‘আমি আলোচনা থেকে উঠে বাথরুমে গিয়েছিলাম, এর মধ্যেই শুনি গুলির শব্দ, এসে দেখি চারজন রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছেন।’

ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার শেখ মারুফ হাসান ঘটনাস্থল ও ইউনাইটেড হাসপাতাল পরিদর্শন শেষে বলেন, নিহতদের শরীরে গুলির একাধিক চিহ্ন রয়েছে। কী কারণে তাদের ওপর হামলা হয়েছে, তা এ মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না।

রাজনৈতিক, এলাকার আধিপত্য, ব্যক্তিগত, ব্যবসা- সব বিষয় মাথায় রেখে তদন্ত শুরু হয়েছে বলে পুলিশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। থানা পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব এবং গোয়েন্দা পুলিশ বিষয়টি দেখছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।