বিরোধী দল দমনে সরকার আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিয়োজিত করেছে

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান অভিযোগ করেছেন, সরকার তার সমস্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে বিরোধী দল দমনে নিয়োজিত করেছে। মঙ্গলবার দুপুরে নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক ব্রিফিংয়ে তিনি এই অভিযোগ করেন।

 

নজরুল ইসলাম খান বলেন, বিদেশি নাগরিক হত্যার অজুহাতে সরকার সারাদেশে বিরোধী মতের নেতাকর্মীদের গণহারে গ্রেপ্তার করছে। তারা বিরোধী দলকে রাজনীতি করতে দিতে চায় না।

 

দুই বিদেশি নাগরিক হত্যায় বিএনপি-জামায়াতকে জড়িয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর মত দায়িত্বশীল ব্যক্তির কাছ থেকে আমরা এ ধরনের বক্তব্য আশা করি না।

 

বিএনপির এই নেতা বলেন, আমাদের আশঙ্কা, তার (প্রধানমন্ত্রী) এই বক্তব্যের পর এ হত্যার মামলার সঠিক তদন্ত হবে না। প্রকৃত দোষীরা আড়ালে থেকে যাবে।

 

উল্লেখ্য, গত রবিবার এক সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘দুটি হত্যায় একই ধরনের। এ ঘটনায় বিএনপি-জামায়াতের মদদ আছে। নিশ্চয়ই এর মধ্যে বিএনপি-জামায়াতের হাত আছে।’

 

নজরুল ইসলাম আরো অভিযোগ করেন, ‘বিদেশি হত্যায় বিএনপি নিন্দা জানিয়েছে। অবিলম্বে প্রকৃত দোষীদের গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছে। অথচ তদন্তের আগেই প্রধানমন্ত্রী এ ঘটনায় বিএনপির ওপর দায় চাপিয়ে বক্তব্য দিলেন। এতে মনে হচ্ছে, দেশে আইন ও বিচারের কোনো প্রয়োজন নেই। যাকে খুশি তাকে ধরে শাস্তি দিলেই হয়।’

 

এ সময় তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, ‘আমরা জানতে চাই- এ দেশে আপনারা ছাড়া অন্য কোনো রাজনৈতিক দলকে রাজনীতি করতে দেবেন কি না। নাকি আইন করে বিরোধী দলের রাজনীতি নিষিদ্ধ করবেন?’

 

ব্রিফিংয়ে স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, যুগ্ম-মহাসচিব মো. শাহজাহান, আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, সহ-দপ্তর সম্পাদক শামীমুর রহমান শামীম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।