তারেককে গ্রেপ্তার সংক্রান্ত তামিল প্রতিবেদন দাখিল পিছিয়েছে

মানহানির তিন মামলায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তার সংক্রান্ত তামিল প্রতিবেদন দাখিল পিছিয়েছে। প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ৩১ ডিসেম্বর দিন ধার্য করেছে আদালত। নির্ধারিত দিন সোমবার পুলিশ প্রতিবেদন দাখিল না করায় ঢাকা মহানগর হাকিম আতাউল হক নতুন এই দিন ধার্য করেন।

 

এর আগে চলতি বছরের ২০ জানুয়ারি ঢাকা মহানগর হাকিম আনোয়ার ছাদাত তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আমলে নিয়ে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

 

মামলার অভিযোগ থেকে জানা গেছে, ২০১৪ সালের ২৪ আগস্ট লন্ডনে এক আলোচনা সভায় তারেক রহমান বলেন, ‘আওয়ামী লীগ নেতারা কুলাঙ্গার এবং শেখ হাসিনা কুলাঙ্গারদের নেত্রী।’ এরপর ২ সেপ্টেম্বর জিয়াউর রহমানকে বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি বলে উল্লেখ করেন তিনি।

 

এদিকে, দলটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ২০১৪ সালের ৫ সেপ্টেম্বর সাবেক অর্থমন্ত্রী এম সাইফুর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীতে বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ৭ মার্চের ভাষণ শেষে জয় পাকিস্তান বলেন এবং তিনি স্বাধীনতার ঘোষণা দেননি।’

 

এসব বক্তব্য বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রচারিত হওয়ায় নিজের সুনাম ক্ষুণ্ন হয়েছে— এমন অভিযোগে ২০১৪ সালের ৮ সেপ্টেম্বর জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এ বি সিদ্দিকী বাদী হয়ে ঢাকা মহানগর হাকিম এরফান উল্লাহর আদালতে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মামলাটি করেন। এ মামলায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জামিনের আছেন।

 

একই ঘটনায় ২০১৪ সালের ১৭ নভেম্বর আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপকমিটির সহ-সম্পাদক মো. মনির খান বিএনপির সিনিয়ার ভাইচ চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে ঢাকা মহানগর হাকিম রেজাউল করিমের আদালতে মামলা করেন। ২২ ডিসেম্বর তারেকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে আদালত।

 

একই ঘটনায় ২০১৪ সালের ১৯ অক্টোবর তারেক রহমানের বিরুদ্ধে আরো একটি মামলা করেন বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সভাপতি অ্যাডভোকেট মশিউর মালেক।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।