আওয়ামী লীগ-বিএনপির সমাবেশের অনুমতি

বিশেষ বিবেচনায় নিজ নিজ দলের কার্যালয়ের সামনে আগামীকাল বুধবার ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও প্রধান বিরোধী দল বিএনপিকে সমাবেশ কর্মসূচি পালনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

 

ফলে আওয়ামী লীগ তাদের বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের কেন্দ্রীয় কার্যালয় এবং বিএনপি নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এই সমাবেশ করতে পারবে। সোমবার দুপুরে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের কনফারেন্স রুমে এক সম্মেলনে এই অনুমতির কথা ঘোষণা করেন মেয়র সাঈদ খোকন।

 

তিনি বলেন, স্বাধীন মত প্রকাশের স্বার্থে দুদলকেই বিশেষ বিবেচনায় তাদের দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তবে ভবিষ্যতে সড়ক বা রাস্তায় কোনো সমাবেশ না করার আহ্বান জানানো হচ্ছে।

 

সমাবেশের জন্য পুলিশের অনুমতি লাগবে কি না— এমন প্রশ্নের জবাবে মেয়র বলেন, মাইক ব্যবহারে পুলিশের অনুমতি লাগবে।

 

২০১৪ সালের বিতর্কিত ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের দিনকে আওয়ামী লীগ ‘গণতন্ত্রের বিজয় দিবস’ আর বিএনপি ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ হিসেবে পালন করে আসছে।

 

এই দিবস উপলক্ষে আওয়ামী লীগ রাজধানী ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানসহ ১৮টি স্থানে মঙ্গলবার সমাবেশ কর্মসূচির ঘোষণা দেয়। একই দিন বিএনপিও সোহরাওয়ার্দীতে সমাবেশ পালনের কর্মসূচি দেয়।

 

পরে দুটি দলই ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনারের কার্যালয়ে (ডিএমপি) সমাবেশ করার অনুমতির জন্য আবেদন করে।

 

ফলে উত্তেজনাকর পরিস্থিতিতে ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া গতকাল রবিবার সংবাদ সম্মেলন করে বলেন, ‘জননিরাপত্তা বিঘ্নিত ও সংঘর্ষের আশঙ্কা থাকলে কাউকে কর্মসূচি পালনের অনুমতি দেওয়া হবে না।’

 

এরপর বিএনপি নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এবং আওয়ামী লীগও বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এই সমাবেশ করার অনুমতি চেয়ে আবেদন করে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।