সুষ্ঠু নির্বাচন হলে এমপি-মন্ত্রীদের যুগ যুগ টেলিভিশনে দেখা যাবে না: হাফিজ উদ্দীন

বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান হাফিজ উদ্দীন আহমেদ বীর বীক্রম বলেছেন, দেশে একটি সুষ্ঠু নির্বাচন হলে এই অবৈধ সরকারের এমপি-মন্ত্রীদের যুগ যুগ ধরে টেলিভিশনের পর্দায় দেখা যাবে না।

 

জাতীয়তাবাদী জিয়া সমাজকল্যান পরিষদ আয়োজিত আলোচনা সভায় হাফিজ উদ্দীন আহমেদ বলেন, ‘সরকারের এমপি-মন্ত্রী বলে-আমরা অনেক উন্নয়ন করেছি। আপনারা যদি উন্নয়ন করেই থাকেন তাহলে একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের ব্যবস্থা করুন। আমি স্পষ্ট করে বলতে পারি একটি সুষ্ঠু নির্বাচন হলে এসব এমপি-মন্ত্রীদের যুগ যুগ ধরে টেলিভিশনে দেখা যাবে না।’

 

এই মিথ্যাচারী সরকার ও তার এমপি-মন্ত্রীদের একদিন ইতিহাসের কাঠগড়ায় দাড়াতে হবে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

 

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা প্রসঙ্গে সাবেক এই মন্ত্রী বলেন,‘খালেদা জিয়া নিজেই একজন মুক্তিযোদ্ধা। মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি দরদ তার চেয়ে বেশি আর কারো থাকতে পারে না। সরকারের ব্যর্থতা ঢাকতে জনগণের দৃষ্টিভঙ্গি অন্যদিকে নিতেই খালেদার বিরুদ্ধে মামলা দেয়া হয়েছে।’

 

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘দেশের সংবিধানের ব্যাখ্যা দানকরী হচ্ছে সুপ্রিমকোর্ট। সেই সুপ্রিমকোর্টের প্রধান বিচারপতি বলেছেন সপথের সময় অতিক্রম হওয়ার পর রায় লেখা অবৈধ। তাই জনগণ ও প্রধান বিচারপতির বক্তব্য অনুধাবন করে সরকারের পদত্যাগ করে একটি নির্বাচনের ব্যবস্থা করা উচিত।’

 

তিনি বলেন, ‘দেশের সমস্ত শিশু অপহরনের জন্য আওয়ামী লীগ ও কিছু বিপথগামী পুলিশ জড়িত। সরকার দেশকে পুলিশি স্টেটে পরিণত করেছে বলেই এসব অপহরন বেড়ে গেছে। আর এসব কিছুর মূল কারন হচ্ছে দেশে আজ সুশাসন বিলুপ্ত, গণতন্ত্র অনুপস্থিত।’ ‘১৯৭৫ সালের ২৫ জানুয়ারি আওয়ামী লীগ দেশে প্রথম গণতন্ত্র হত্যা করে। তাদের হাতে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ক্রমাগত বিকৃত হয়েছে।’

 

রবিবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে বিএনিপর প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৮০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বহুদলীয় গণতন্ত্র ও আজকের প্রেক্ষাপট’ শীর্ষক এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

 

আয়োজক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন খোকনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন, বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আসাদুজ্জামান খান রিপন, সংগঠনের সহ-মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, ঢাকা মহানগরের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক নাজমা আক্তার,জাতীয়তাবাদী ওলামা দলের ঢাকা মহানগর দক্ষিনের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।