‘বিএনপিকে নিষিদ্ধের তথ্য সরকারের কাছে আছে’

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম বলেছেন, “ইসরায়েলের গোয়েন্দা সংস্থাকে ব্যবহার করে বিএনপি ক্ষমতায় আসার চেষ্টা করছে। সরকারের কাছে এমন ‘অনেক তথ্য আছে’, যেগুলো যোগ করলে বিএনপিকে ‘নিষিদ্ধ’ করা যায়।”

মঙ্গলবার সুইডেনের আইন ও অভিবাসন মন্ত্রী মর্গান জোহানসনের সঙ্গে এক বৈঠকের পর সাংবাদিকদের এ কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার।

তবে ইসরাইলি গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের সঙ্গে বিএনপির যোগাযোগের বিষয়ে আর কোনো তথ্য তিনি দেননি।

শাহরিয়ার আলম বলেন, “আমাদের কাছে এমনও খবর আছে, তারা ইসরাইলি গোয়েন্দা সংস্থাকে ব্যবহার করে বাংলাদেশকে একটি ধর্মান্ধ মুসলিম দেশ হিসেবে উপস্থাপন করে তারা তাদেরকে আশ্বস্ত করার চেষ্টা করেছে-বিএনপি ক্ষমতায় গেলে ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্কের উন্নতি হবে।”

বাংলাদেশকে ‘বিব্রত করার জন্য’ বিএনপি অব্যাহতভাবে ‘চক্রান্ত করে যাচ্ছে’ বলেও অভিযোগ করেন আওয়ামী লীগ সরকারের এই প্রতিমন্ত্রী।

বাংলাদেশ পরিস্থিতি নিয়ে কমনওয়েলথের একটি বৈঠকে খালেদা জিয়ার পক্ষে ‘অবস্থান নিয়ে’ পাকিস্তান আলোচনার প্রস্তাব তুলেছিল বলে যে খবর গণমাধ্যমে এসেছে, সে বিষয়েও প্রতিমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন সাংবাদিকরা।

শাহরিয়ার বলেন, “সে বৈঠকে আমরা উপস্থিত ছিলাম না। অন্যান্য যারা উপস্থিত ছিলেন তাদের কাছ থেকে সত্যতা পেয়েছি। এতে প্রতীয়মান হয়, বাংলাদেশের মানুষের সমর্থন না পেয়ে তারা বিদেশিদের উপর নির্ভর করা শুরু করেছে।”

তিনি বলেন, “খালেদা জিয়া, যিনি একাধিকবার বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন, পাকিস্তান তার হয়ে আন্তর্জাতিক দরবারে ওকালতি করছে। এটা তাৎপর্যপূর্ণ। জামায়াতের মুখোশ আগেই উন্মোচিত হয়েছে, যত দিন যাচ্ছে বিএনপির মুখোশও উন্মোচিত হচ্ছে।”

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, “আমার মনে হয়, এখন সময় এসেছে সাক্ষ্য প্রমাণ এক জায়গায় করে বিএনপির রাজনীতি করার অধিকার আদৌ আছে কিনা; বাংলাদেশের উচ্চ পর্যায়ের ব্যক্তিদের সেই উদ্যোগ নেয়ার সময় এসেছে।”

‘যুদ্ধাপরাধী দল’ হিসেবে বিএনপিকে নিষিদ্ধ করার দাবি যদি এখন কেউ তোলেন, তা অযৌক্তিক হবে বলেও তিনি মনে করেন না।

শাহরিয়ার আলম বলেন, “ইসরাইলের বাইরে পৃথিবীর সব রাষ্ট্রের সঙ্গেই আমাদের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আছে। এসব চক্রান্তে বিএনপি-জামায়াত অতীতেও সফল হয়নি, ভবিষ্যতেও পারবে না, সে লক্ষ্যে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।”

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।