ট্রাস্ট মামলায় খালেদাকে ২ জুন আদালতে হাজিরের নির্দেশ

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় প্রধান আসামি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আত্মপক্ষ সমর্থনের দিন পঞ্চম দফায় পিছিয়ে আগামী ২ জুন পুনর্নির্ধারণ করা হয়েছে। ওইদিন খালেদা জিয়াকে হাজির থাকার নির্দেশ দিয়ে হাজির না হলে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হবে বলে জানিয়েছেন আদালত।

 

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা মামলা দু’টির বিচারিক কার্যক্রম চলছে রাজধানীর বকশিবাজারে কারা অধিদপ্তরের প্যারেড মাঠে স্থাপিত তৃতীয় বিশেষ জজ আবু আহমেদ জমাদারের অস্থায়ী আদালতে।

 

বৃহস্পতিবার ৩৪২ ধারায় খালেদার আত্মপক্ষ সমর্থনের দিন ধার্য ছিল। তবে তিনি আদালতে হাজির হননি। তার পক্ষে অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে দিন পেছাতে সময়ের আবেদন জানান তার আইনজীবী অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া।

 

শুনানি শেষে এ আবেদন মঞ্জুর করে ২ জুন পুনর্নির্ধারণ করেন আদালত। এর আগে গত ৭, ১৭ ও ২৫ এপ্রিল এবং ০৫ মে আরো চার দফা সময়ের আবেদন জানিয়ে দিন পিছিয়ে নেন খালেদা জিয়া। দুদকের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মোশাররফ হোসেন কাজল।

 

জামিনে থাকা অন্য দুই আসামি জিয়াউল ইসলাম মুন্না ও মনিরুল ইসলাম খান গত ৭ এপ্রিল আত্মপক্ষ সমর্থন করে আদালতে লিখিত বক্তব্য জমা দিয়েছেন।

 

এ মামলায় সাক্ষ্য দিয়েছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা ও বাদী দুদকের উপ-পরিচালক হারুন-অর রশিদসহ ৩২ জন সাক্ষী।

 

অন্যদিকে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার বাদী ও প্রথম সাক্ষী দুদকের উপ-পরিচালক হারুন-অর-রশিদকে আসামিপক্ষের জেরা চলছে। অসমাপ্ত জেরা ও নতুন সাক্ষীদের সাক্ষ্যগ্রহণ চলছে বৃহস্পতিবার।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।