রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় আসলাম চৌধুরী ৭ দিনের রিমান্ড

গুলশান থানায় দায়ের করা রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আসলাম চৌধুরীর সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

 

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় আসলামের ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেছিল পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। এ বিষয়ে শুনানির শেষে মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা মহানগর হাকিম সাত দিনের রিমান্ডের এ আদেশ দেন। আসামিপক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া।

 

গত বৃহস্পতিবার গুলশান থানায় আসলামের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা করা হয়। ডিবির পরিদর্শক গোলাম রাব্বানী বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

 

ডিএমপির গণমাধ্যম ও জনসংযোগ বিভাগের উপকমিশনার মো. মাসুদুর রহমান জানান, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতি পাওয়ার পর আসলামের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ১২০ (বি), ১২১ (৩) ও ১২৪ (এ) ধারায় রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা করা হয়। মামলায় আসলামের বিরুদ্ধে ইসরাইলের গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের এজেন্টের সঙ্গে হাত মিলিয়ে ‘বাংলাদেশের সরকার উৎখাত ষড়যন্ত্রের অভিযোগ’ আনা হয়েছে।

 

সম্প্রতি ইসরাইলের লিকুদ পার্টির সদস্য মেন্দি এন সাফাদির সঙ্গে আসলাম চৌধুরীর একটি ছবি গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। ইসরাইলের ওই নেতার সঙ্গে তিনি ষড়যন্ত্রমূলক বৈঠক করেছেন বলে দাবি করে নিরাপত্তা বাহিনী ও আওয়ামী লীগ। এরপরই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

 

১৫ মে সন্ধ্যায় রাজধানীর খিলক্ষেত এলাকা থেকে আসলামকে গ্রেপ্তার করে ডিবি। পরদিন ফৌজদারি কার্যবিধির (সন্দেহজনক) ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে তাকে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়।

 

২৪ মে আসলামকে আদালতে হাজির করে মতিঝিল ও লালবাগ থানায় করা নাশকতার দুই মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়। এদিকে নাশকতার অপর দুই মামলায় আসলাম চৌধুরীকে রিমান্ডে নেওয়ার আবেদনের শুনানির দিন ধার্য রয়েছে আগামী ৬ জুন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।