জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় সাক্ষ্য গ্রহণ ১৬ জুন

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় বিএনপি চেয়ারপাসন খালেদা জিয়া ও দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য ১৬ জুন দিন ধার্য করেছেন আদালত।

 

বৃহস্পতিবার পুরান ঢাকার বকশী বাজারে আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত অস্থায়ী ঢাকার তৃতীয় বিশেষ জজ আবু আহমেদ জমাদার একজনকে জেরা ও তিনজনের জবানবন্দী গ্রহণের পর এদিন ঠিক করেন।

 

জবানবন্দী দেওয়া তিনজন হলেন, সোনালী ব্যাংকের কুমিল্লার করপোরেট শাখার ডিজিএ হারুন অর রশিদ, প্রাইম ব্যাংকের গুলশান শাখার ভাইস প্রেসিডেন্ট ইকবাল হোসেন ও প্রাইম ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় শাখার ভাইস প্রেসিডেন্ট মাসুদ বিন করিম। এর আগে সোনালী ব্যাংকের কর্মকর্তা আবুল খায়েরকে জেরা করেন আসামিপক্ষের আইনজীবীরা।

 

খালেদা জিয়ার পক্ষে তার আইনজীবী আব্দুর রেজ্জাক খান, তারেক রহমানের পক্ষে বোরহান উদ্দিন ও মাগুরার সাবেক এমপি কাজী সালিমুল হক কামাল ওরফে ইকোনো কামাল ও ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদের পক্ষে রেজাউল করিম সরকার পর্যায়ক্রমে তাদের জেরা শেষ করেন।

 

এদিকে আইনজীবীর মাধ্যমে আদালতে হাজিরা দিয়েছেন খালেদা জিয়া। এতিমদের জন্য বিদেশ থেকে আসা ২ কোটি ১০ লাখ ৭১৬৭১ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে জিয়া অরফানেজ মামলাটি দায়ের করে দুদক। ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় এই মামলা দায়ের করা হয়।

 

২০০৯ সালের ৫ আগস্ট আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে দুদক। অভিযোগপত্রে খালেদা জিয়া, তার বড় ছেলে তারেক রহমান, সাবেক এমপি কাজী সালিমুল হক কামাল ওরফে ইকোনো কামাল ও ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সচিব ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমানকে আসামি করা হয়।

 

আসামি তারেক রহমান সরকারের নির্বাহী আদেশে দেশের বাইরে আছেন। মাগুরার সাবেক এমপি কাজী সালিমুল হক কামাল ওরফে ইকোনো কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ জামিনে আছেন। ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও মমিনুর রহমান মামলার শুরু থেকেই পলাতক।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।