নাসিক নির্বাচনে সেনা মোতায়েনর দাবি বিএনপির

আসন্ন নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনে অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠানের জন্য সেই নির্বাচনী এলাকায় সেনা মোতায়েনের দাবি জানিয়েছে বিএনপি।

 

মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে স্বাধীনতা ফোরাম কতৃক আয়োজিত বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ৫২তম জন্মদিন উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় বিএনপির পক্ষ থেকে দলের সিনিয়র যুগ্মমহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ এ দাবি জানান।

 

রিজভী বলেন, ‘বিএনপি অবশ্যই চায় নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ২২ ডিসেম্বর নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করার জন্য সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হউক। নারায়ণগঞ্জ যেহেতু গডফাদারদের শহর হিসেবে পরিচিত তাই সেখানে সেনাবাহিনী স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে কাজ করলে সাধারণ ভোটাররা নূন্যতম নির্বাচনী পরিবেশ পাবে। ভয়ে, আতঙ্কে কোনো গডফাদারকে ভোট দিতে হবে না।’

 

তিনি আরো বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ইসি গঠনের যে প্রস্তাব দিয়েছেন তা আগামী জাতীয় নির্বাচনের পথকে সুগম করবে। অথচ বর্তমান সরকারের তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু সেনা মোতায়েনের কথা শুনলেই আতকে উঠছেন।’

 

মায়ানমারে চলমান গণহত্যার প্রসঙ্গে বিএনপির এই নেতা বলেন, মায়নমারে মুসলমানদের ওপর যে অত্যাচার নির্যাতন হচ্ছে সেখান থেকে পালিয়ে আসাদের নিরাপত্তা দেয়া প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব। কিন্তু সরকারের সেদিকে কোনো ভ্রুক্ষেপ নেই। তারা নির্বিকার। বিএনপি মিয়ানমার প্রসঙ্গে ক্ষমতাসীন সরকারের নির্বিকার থাকার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে।’

 

স্বাধীনতা ফোরামের সভাপতি ও বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মুহাম্মদ রহমতুল্লাহ এর সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন, বিএনপি নেতা খায়রুল কবির খোকন, আমিরুল ইসলাম খান আলীম, খালেদা ইয়াসমিন, আমিনুল ইসলাম ও সাইফুল ইসলাম পটু প্রমুখ।