খালেদাকে ১৯ ডিসেম্বর আদালতে হাজিরের নির্দেশ

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে আগামী ১৯ ডিসেম্বর আদালতে হাজির হতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

 

বৃহস্পতিবার সকালে পুরান ঢাকার বকশিবাজারে অবস্থিত বিশেষ জজ আদালত-৩ এর বিচারক আবু আহমেদ জামাদার এ নির্দেশ দেন।

 

আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার। এসময় ১৯ ডিসেম্বর হাজির না হলে খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন বাতিল করা হবে বলে জানান আদালত।

 

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় আত্মপক্ষ শুনানি করতে বৃহস্পতিবার আদালতে হাজির হওয়ার কথা থাকলেও  অসুস্থতার কারণে তিনি আদালতে যাননি।

 

এর আগে গেল ৮ ডিসেম্বর ঢাকার ৩ নম্বর বিশেষ জজ আবু আহমেদ জমাদার আসামিপক্ষের সময়ের আবেদন মঞ্জুর করে খালেদা জিয়ার আত্মপক্ষ সমর্থনের অসমাপ্ত শুনানির জন্য বৃহস্পতিবার দিন ধার্য করেন।

 

এর আগে মামলাটিতে খালেদা জিয়া এবং তার বড় ছেলে তারেক রহমানের পক্ষে জেরা শেষ হয়েছে।

 

২০১০ সালের ৮ আগস্ট তেজগাঁও থানায় জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলা দায়ের করা হয়। জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে ৩ কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা লেনদেনের অভিযোগ এনে এ মামলা দায়ের করা হয়।

 

অন্যদিকে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই মাসে রমনা থানায় জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা দায়ের করে দুদক। এতিমদের সহায়তা করার উদ্দেশ্যে একটি বিদেশি ব্যাংক থেকে আসা ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ এনে এ মামলা দায়ের করা হয়।

 

২০১৪ সালের ১৯ মার্চ দুই মামলায় খালেদা জিয়াসহ অপর আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ (চার্জ) গঠন করেন ঢাকা তৃতীয় বিশেষ জজ আদালতের আগের বিচারক বাসুদেব রায়।