২১ আগস্টের বর্বর গ্রেনেড হামলার সাথে বিএনপি সরাসরি জড়িত: কাদের

২১ আগস্টের বর্বর গ্রেনেড হামলার সাথে বিএনপি সরাসরি জড়িত। তারা এ হামলার মাস্টারমাইন্ড বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

 

রবিবার সকালে সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে এ মন্তব্য করেন তিনি।

আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, নির্বাচন সংবিধান অনুযায়ীই হবে। আশা করছি সেই নির্বাচনে বিএনপি অংশ নেবে।

নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েন প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েন হবে কি হবে না সেটা সময় অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। তাছাড়া আওয়ামী লীগতো কখনোই বলেনি যে নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হবে না। এখন দেখা যাক সময় কি বলে?

 

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, এলাকায় যার জনপ্রিয়তা আছে, জনগণের কাছে যারা অধিক গ্রহণযোগ্য, তারাই আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলের মনোনয়ন পাবেন।

 

প্রসঙ্গত: ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের জনসভায় দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে চালানো হামলায় নিহত হন মোট ২২ জন। আহত হয় কয়েকশ নেতা-কর্মী। দীর্ঘ বিচারিক প্রক্রিয়া শেষে আগামী মাসে আলোচিত এই মামলার রায় হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

 

এদিকে দুপুরে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের সাভারের হেমায়েতপুরের বাসস্ট্যান্ডে ইন্টার সেকশেসনের আলোকবাতি উদ্বোধন করতে গিয়ে সেতুমন্ত্রী জানান, ‘গণতন্ত্রের কথা বলে বিএনপি যদি ২০১৮ সালকে ২০১৪ সালের মতো মনে করে, তাহলে তারা মারাত্মক ভুল করবে।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘এ ছাড়া এবার যদি সন্ত্রাস ও সহিংসতা হয়, তাহলে দেশের মানুষই প্রতিরোধ করবে,’ যোগ করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী।

 

এ সময় মন্ত্রী সড়কে শৃঙ্খলা ও মানুষের মৃত্যুর মিছিল নিয়েও কথা বলেন। তিনি বলেন, এসব বন্ধে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী ১০ দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়া যাবে। এরপরই এ ব্যাপারে বাস্তবসম্মত পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে আশ্বাস দেন তিনি।

এ সময় মন্ত্রীর সঙ্গে সড়ক বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ছাড়াও স্থানীয় সাংসদ ডা. এনামুর রহমান ও স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।