আমাদের ছদ্মবেশী শত্রুপক্ষ আছে, তারা সরকার হটানোর ষড়যন্ত্র করছে: কাদের

‘আমাদের ছদ্মবেশী শত্রুপক্ষ আছে। এরাই বেশি সক্রিয়। এরাই গুজব-সন্ত্রাস ছড়াচ্ছে। এরা সুশীলেও আছে, মিডিয়াতেও আছে। এরা বিভিন্ন আখড়া থেকে বৈঠক করে সরকার হটানোর ষড়যন্ত্র করছে’ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

 

মঙ্গলবার দুপুরে গুলিস্তান নাট্যমঞ্চে আওয়ামী যুবলীগ আয়োজিত ‘শোকের মাস আগস্ট ব্যাপী কর্মসূচির সমাপনী’ উপলক্ষে আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুকের পরিচালনায় আলোচনা সভায় আরও বক্তৃতা করেন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ, ঢাকা উত্তর যুবলীগের সভাপতি মাইনুল হোসেন খান নিখিল, দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি ইসমাঈল চৌধুরী সম্রাট, উত্তর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ইসমাঈল হোসেন, দক্ষিণ যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জাফর আহমেদ রানা প্রমুখ।

 

একাদশ জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে যুবলীগকে সতর্ক করে কাদের বলেন, ‘একাদশ নির্বাচনী কেন্দ্রগুলোতে যাতে বিএনপি-জামায়াতের দোষররা কোনো বিশৃঙ্খলা না করতে পারে সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।’

কাদের বলেন, ‘নির্বাচনে এলে তারা জয়ী হতে পারবে না বলেই সরকার হঠাতে চোরাগলির পথ বেছে নিয়েছে বিএনপি।’

 

‘২১ আগস্ট হত্যাকাণ্ড নিয়ে তারা নিষ্ঠুর তামাশা করছে। ১৫ আগস্ট এবং ২১ আগস্টের হত্যাকাণ্ড একই সূত্রে গাঁথা। সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশ করতে গিয়ে আমরা সন্ত্রাসের শিকার হয়েছি, আমরা এ রাজনীতিকে ধিক্কার জানাই। এরাই সেই দল (বিএনপি) যারা দলের গঠনতন্ত্র থেকে ৭ ধারা বাদ দিয়েছে। ৭ ধারা বাতিল করে দুর্নীতিবাজ, পাগল, মাতালকে দলে স্থান করার সুযোগ করে দিয়েছে।’

 

মন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের অনেকেই ছিলো ছদ্মবেশী মুক্তিযোদ্ধা। এখন বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীরা ও বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার চায়।’

 

বিএনপি নেতাদের ২১ আগস্টের খুনের বিচার চাওয়া রাজনৈতিক নিষ্ঠুর রসিকতা মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বিএনপি খুন করেও খুনের বিচার চাইতে পারে। দুর্নীতি করে দুর্নীতির বিচার চাইতে পারে।’