বুকের তাজা রক্ত দিয়ে স্বৈরাচার সরকারের পতন ঘটানো হবে:মিনু - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :
ছাত্রদলের ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে ছাত্র সমাবেশ

বুকের তাজা রক্ত দিয়ে স্বৈরাচার সরকারের পতন ঘটানো হবে:মিনু



প্রেস বিজ্ঞপ্তি, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

জাতীয়তাবদী ছাত্রদল রাজশাহী মহানগর, জেলা ও বিশ্ববিদ্যালয় শাখার আয়োজনে ছাত্রদলের ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ছাত্র সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।বুধবার বেলা ৩টা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত নগরীর মালোপাড়াস্থ বিএনপি কার্যালয়ের সামনে এই সমাবেশ হয়। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি আসাদুজ্জামান জনি। প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার অন্যতম উপদেষ্টা, সাবেক মেয়র ও সংসদ সদস্য জননেতা মিজানুর রহমান মিনু। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক, রাজশাহী মহানগর বিএনপি’র সভাপতি ও সাবেক রাসিক মেয়র মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির ত্রাণ ও পুনর্বাসন বিষয়ক সহ-সম্পাদক ও মহানগর বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট শফিকুল হক মিলন, সিনিয়র সহ-সভাপতি নজরুল হুদা, জেলা বিএনপি’র সদস্য সৈয়দ মহসিন আলী, মিজানুর রহমান মিজান, রায়হানুল ইসলাম রায়হান ও বিএনপি নেতা আনোয়ার হোসেন উজ্জল। সমাবেশ সঞ্চালনা করেন জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম জনি ও মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক আকবর আলী জ্যাকি। সার্বিক তত্বাবধানে ছিলেন মহানগর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রবি।


আরো উপস্থিত ছিলেন মহানগর বিএনপি’র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ওয়ালিউল হক রানা, জেলা বিএনপি’র সদস্য ও সাবেক সংসদ সদস্য জাহান পান্না, রাজপাড়া থানা বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক মুরাদ পারভেজ পিন্টু, মতিহার থানা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক ডিকেন, মহানগর যুবদলের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ সুইট, জেলা যুবদলের সভাপতি মোজাদ্দেদ জামানী সুমন, মহানগর যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুল হাসনাইন হিকোল, বতর্মান সভাপতি মাহফুজুর রহমান রিটন, সিনিয়র সহ-সভাপতি সুলতান আহম্মেদ, সহ-সভাপতি মোজাফ্ফর হোসেন মুকুল, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি জাকির হোসেন রিমন, সাধারণ সম্পাদক আবেদুর রেজা রিপন, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক জুলফিকার আলী ভুট্টো, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক আনন্দ কুমার, মহানগর মহিলা দলের যুগ্ম আহবায়ক এ্যাডভোকেট রওশন আরা পপি, সামসুন নাহার, মুসলেমা বেগম বেলী, জরিনা খাতুন ও মহিলা নেত্রী রীতা, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রনি প্রধান, রাবি ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুলতান আহম্মেদ রাহী, শামসুদ্দীন চৌধুরী সালিন, রাশেদ আলী ও মেহেদী হাসান খান।


এছাড়াও রাজশাহী জেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতি রবিউল ইসলাম কুসুম, মহানগর ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক সৌরভ, জেলা ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়সাল সরকার ডিকো, ও জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি বিপুল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এস.এম হলের সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক মুজাহিদুর রহমান, সুর্য্যসেন হলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহীনুর ইসলাম, বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদল নেতা নুরুল আমীন আরিফ, ঢাকা মহানগর উত্তরের ছাত্রনেতা এস.এম রাজিব, নারয়নগঞ্জ জেলা ছাত্রদল নেতা সাজ্জাদ আলম ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের ছাত্রনেতা অব্দুর রহমান ও মহানগর ছাদলের সহ-সভাপতি আরিফসহ রাজশাহী মহানগর, জেলা, উপজেলা, পৌরসভা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডের ছাত্রদল নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মিনু বলেন, দেশের ১৬ কোটি মানুষ এখন অন্ধকারে নিমজ্জিত। অন্ধকার থেকে আলোর পথে আনতে এবং ২৬ মার্চ বেগম জিয়ার মুক্তি, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার ও দেশের মানুষের অধিকার ফিরিয়ে দিতে নিজের রক্ত দিয়ে স্বৈরাচার শেখ হাসিনা নিপাত যাক, গণতন্ত্রের মা বেগম খালেদা জিয়া মুক্তি গায়ে ও বুকে লিখে রাস্তায় নেমে র‌্যালি ও মিছিল করবে। সেদিন কারো বাধাই আর মানা হবেনা । বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য জীবন বাজি রেখে সেদিন থেকে আরো কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে বলে জানান মিনু। তিনি বলেন ১৯৭৯ সালে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান ছাত্রদের অধিকার সংরক্ষণ এবং দেশের অন্যায় অবিচার রুখে দেয়ার জন্য ছাত্রদল প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। এখন তাঁর সুযোগ্য উত্তস্বরী বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান এই দলটিকে সুসংগঠিত করে রেখেছেন। তাঁর নেতৃত্বে ছাত্রদল এখন আরো বেশী সুশৃখল ও সুসংগটিত। আগামীতে দেশের গণতন্ত্র রক্ষা এবং বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলনে ছাত্রদলকে অগ্রণী ভুমিকা পালন করার আহবান জানান প্রধান অতিথি।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বুলবুল ও মিলন বলেন, এই সরকার প্রধানের নিজস্ব ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগ ছাত্র রাজনীতিকে কুলশিত করে ফেলেছে। প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্রলীগ খুন, গুম, নির্যাতন ও র‌্যাগিং এর নামে সাধারণ ছাত্র ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের নির্যাতন করছে। বর্তমান অবৈধ প্রধানমন্ত্রী সেগুলো দেখেও না দেখার ভান করে আছেন। তারা আরো বলেন, ছাত্রদল একটি সুশৃংখল ও সুসংগঠিত একটি দল। ছাত্রদলই পারে দেশ থেকে সকল প্রকার অত্যাচার, অনাচার দূর করতে। আগামীতে সকল প্রকার আন্দোলনে ছাত্রদলের অগ্রণী পালনের আহবান জানান তাঁরা।


উপস্থিত ছাত্রদল নেতৃবৃন্দ নিজের তারা রক্ত রাজপথে ঢেলে দিয়ে বেগম জিয়ার মুক্তি ও গণতন্ত্র পুণরুদ্ধারে বিএনপি’র সঙ্গে থাকবেন বলে প্রতিশ্রতি দেন। সেইসাথে আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষনা করার জন্য কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতাদের অনুরোধ করেন। শেষে বিভিন্ন ত্যাগের কারনে এবং ছাত্রদলের আনুগত্য বজায় রাখার জন্য নেতাদের জেলা ছাত্রদলের পক্ষ থেকে ক্রেষ্ট দিয়ে সম্মাননা জানানো। হয়। সেইসাথে ছাত্রদলকে পথ দেখানো এবং বিভিন্ন ধরনের পরামর্শ প্রদান করে সামনের দিকে নিতে সহযোগিতা করার জন্য প্রধান অতিথি মিজানুর রহমান মিনু ও রাজশাহী মহানগর বিএনপি’র সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, জেলা ও মহানগর যুবদলের নেতাদের ক্রেষ্ট প্রদান করেন তারা।


এ সম্পর্কিত আরো খবর

রাজনীতি এর অন্যান্য খবরসমূহ
পূর্বের সংবাদ