আহসান উল্লাহ মিয়াজীর মৃত্যুতে জামায়াতের আমীরের গভীর শোক প্রকাশ

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সদস্য (রুকন) কুমিল্লা দক্ষিণ সাংগঠনিক জেলার লাকসাম পৌসভার ৫ নং ওয়ার্ড শাখা জামায়াতের আমীর আহসান উল্লাহ মিয়াজী’র মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমীর ডা. শফিকুর রহমান।


রবিবার এক শোক বার্তায় মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান তিনি। 


শোকবাণীতে তিনি বলেন, জনাব আহসান উল্লাহ মিয়াজী একজন মজলুম মানুষ। তিনি বারবার জেল-জুলুমের স্বীকার হয়েছেন। তার ইন্তিকালে আমি গভীর শোক প্রকাশ করছি। আল্লাহ তায়ালা তার জীবনের সকল নেক আমল কবুল করে তাকে জান্নাতে উচ্চ মাকাম দান করুন এবং তার শোকাহত পরিবার-পরিজনদেরকে এ শোক সহ্য করার তাওফিক দান করুন।


অপর এক যুক্ত শোকবাণীতে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী কুমিল্লা দক্ষিণ সাংগঠনিক জেলা শাখার আমীর জনাব মু. আবদুস সাত্তার, নায়েবে আমীর খন্দকার দেলোয়ার হোসেন, জেলা সেক্রেটারি এডভোকেট মু. শাহজাহান, জেলা সহকারী সেক্রেটারি ডঃ সৈয়দ সরোয়ার উদ্দিন সিদ্দিকী, লাকসাম পৌরসভা আমীর জনাব মু জয়নাল আবেদীন এবং সেক্রেটারি মাওলানা মু শাহাবুদ্দিন গভীর শোক প্রকাশ করে বলেন, জনাব আহসান উল্লাাহ মিয়াজী ছিলেন সংগঠনের একজন মজলুম ও নিবেদিত প্রাণ দায়িত্বশীল। ১৭টি মামলা দিয়ে বারবার জেলে পাঠিয়ে তাকে হয়রানি করা হয়েছে। সন্ত্রাসীরা তাকে অনেক বার আহত করেছে। আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা’আলা তাকে ক্ষমা ও রহম করুন এবং তাঁর জীবনের নেক আমলসমূহ কবুল করে তাঁকে জান্নাতুল ফিরদাউসে স্থান দান করুন। তার শোক-সন্তপ্ত পরিবার-পরিজনদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে তারা বলেন, আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা’আলা তাদেরকে এ শোক সহ্য করার তাওফিক দান করুন।


উল্লেখ্য শনিবার রাত ১২টার দিকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃস্বাস ত্যাগ করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)।


রবিবার ভোর ৫টা ৩০ মিনিটের সময় পশ্চিমগাঁও আল-আমিন স্কুল রাস্তা সংলগ্ন একটি মাঠে ১ম জানাজা ও সাড়ে ৬ টায় উপজেলার কান্দিরপাড় ইউনিয়নের সাতবাড়িয়া নিজ গ্রামের নিজের প্রতিষ্ঠিত মসজিদের পাশে বাবা-মায়ের কবরের পাশে তাকে সমাহিত করা হয়।


মৃত্যু কালে তার বয়স হয়েছিল ৪৯ বছর। তিনি স্ত্রী, ২ পূত্র, ৩ কন্যা সন্তান সহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।


উল্লেখ্য তিনি শ্বাসকষ্ট নিয়ে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপালের আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন।