বায়তুল মোকাররম সহ সারাদেশে রণক্ষেত্র, নিহত ১

বায়তুল মোকাররমে আলেম-ওলামা ও ইসলামি দলগুলোর সদস্যদের সঙ্গে পুলিশের ব্যাপক সংঘর্ষে পুরো এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে। পল্টন, প্রেস ক্লাব, মৎস ভবন এলাকায়ও ছড়িয়ে পড়ে এ সংঘর্ষ। এতে সাত সাংবাদিকসহ কমপক্ষে ২০ জন গুলিবিদ্ধ হয়। শুক্রবার জুমা’আর নামাজ শেষে ইসলামী দলগুলো পূর্বঘোষিত বিক্ষোভ মিছিল বের করলে পুলিশ বাধা দেয়। পুলিশের বাধার মুখে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে বিক্ষোভকারীরা।

শুক্রবার জুমার নামাজের পর আলেম-ওলামা ও ইসলামি দলগুলোর সদস্যরা বায়তুল মোকাররম থেকে মিছিল নিয়ে শাহবাগের দিকে রওয়ানা হন। তখন পুলিশ বাধা দেয়। এরপর সংঘর্ষ শুরু হয়।

image_12708

বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে দলীয় কার্যালয় থেকে রাম দা ও লাঠিসোটা সহ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে মুসল্লিদের ওপর হামলা করেছে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ।
অন্যদিকে, রাজধানীর কাঁটাবনেও ইসলামি দলের কর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে শাহবাগ থানার ওসি আহত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

এছাড়া রাজধানীর বিভিন্ন মসজিদ থেকে জুমার নামাজ শেষে মুসল্লিরা ইসলামের বিরুদ্ধে কটূক্তির প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। রাজধানীর বাইরেও বিভিন্ন স্থান থেকে বিক্ষোভের খবর পাওয়া গেছে।

382293_10151522482472853_1286402358_n

ঝিনাইদহ: ঝিনাইদহে গণজাগরণ মঞ্চের সমর্থকদের সাথে মুসল্লিদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে একজন নিহত হয়েছে। নিহতের পরিচয় এখনও জানা যায়নি।

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামের জামালখান মোড়ে সরকার সমর্থক গণজাগরণ মঞ্চে মুসল্লিদের হামলা, মাইক ভাঙচুর ও আগুন। মঞ্চে থাকা সরকার সমর্থকরা ঘটনাস্থল থেকে নিরাপদ স্থানে সরে গেছে।

বগুড়ায়:
বগুড়ায় সরকার সমর্থক গণজাগরণমঞ্চ ভাঙচুর করেছে মুসল্লিরা। মিছিল নিয়ে শহরের সাতমাথায় স্থাপিত গণজাগরণ মঞ্চ ভাঙচুর করে তারা।
কুমিল্লা: কুমিল্লার কান্দিরপারে গণজাগরণ মঞ্চ ভাংচূর করল মসুল্লীরা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।