আখেরি মোনাজাতে শরীক লাখো মুসল্লি

আখেরি মোনাজাতে রবিবার শেষ হচ্ছে ইজতেমার প্রথম পর্ব। বেলা ১১টা ছয় মিনিটে এই মোনাজাত শুরু হয়। আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করছেন তাবলিগের অন্যতম প্রবীণ ও শীর্ষ মুরুব্বি ভারতের মাওলানা সাদ।

 

এর আগে ইজেতেমার আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করতেন দিল্লির নিজামুদ্দিন মসজিদের খতিব ও তাবলিগ জামাতের অন্যতম শীর্ষ মুরুব্বি মাওলানা জোবায়েরুল হাসান। তিনি ১৯৯৬ সাল থেকে আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করে আসছিলেন। তার মৃত্যুর পর গতবছর থেকে মাওলানা সাদ ইজতেমার আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করে আসছেন।

 

আজ ফজরের নামাজের পর থেকে শুরু হয় আম বয়ান। বয়ান করেন বাংলাদেশের মাওলানা মুশফিকুল ইসলাম। আম বয়ান শেষে চলে হেদায়েতি বয়ান। এরপর শুরু হয় আখেরি মোনাজাত। মোনাজাত শেষে মুসুল্লিরা জোটবদ্ধ হয়ে ইসলামী দাওয়াতি কাজে বের হবেন।

 

প্রতিবারের মত এই মোনাজাতে এবারো রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াসহ রাষ্ট্রে শীর্ষস্থানীয় ব্যক্তি শরিক হবেন।

 

আখেরি মোনাজাত অংশ নিতে রবিবার সকাল থেকে তীব্র শীত ও কুয়াশা উপক্ষো করে টঙ্গীপানে মুসল্লিদের ঢল নেমেছে। বাস, ট্রাক, ট্রেন- যে যেভাবে পারছেন, ইজতেমায় আসছেন। ইতোমধ্যে ইজতেমার মাঠ ছাপিয়ে মানুষেরা টঙ্গী-মহাখালী মহাসড়ক ও এর আশপাশে অবস্থান নিয়েছে।

 

গত শুক্রবার ফজরের পর আম বয়ানের মধ্যদিয়ে শুরু হয় বিশ্ব ইজতেমা। আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হচ্ছে তিন দিনের এই আয়োজন।

 

গাজীপুরের জেলাপ্রশাসক এসএম আলম জানিয়েছেন, রবিবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে বেলা সাড়ে ১১টার মধ্যে যে কোনো সময়ে আখেরি মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।