আজ বিপিএলের দ্বিতীয় আসরের লড়াই শুরু - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

আজ বিপিএলের দ্বিতীয় আসরের লড়াই শুরু



ঢাকা, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

বিপিএল দ্বিতীয় আসরের জমকালো উদ্বোধন হয়ে গেল গতকাল। এবার লড়াইয়ের পালা। আজ প্রথম দিনে দুইটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। মাঠে নামবে প্রথম আসরের চ্যাম্পিয়ন ঢাকা গ্যাডিয়েটরস ও রানার্সআপ বরিশাল বার্নার্স। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে দিনের প্রথম ম্যাচ শুরু হবে বেলা ২টায়। ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটরস খেলবে খুলনা রয়েলসের বিরুদ্ধে। দ্বিতীয় খেলা সন্ধ্যা ৬টায়। মুখোমুখি হবে বরিশাল বার্নার্স ও সিলেট রয়্যালস।
শেষ মুহূর্তে পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা বিপিএলে যোগ না দেয়ায় দলগুলো হিমশিম খাচ্ছে। কারণ নিলামে দলগুলো পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের নিয়েই সাজিয়েছিল পরিকল্পনা। আজ ম্যাচ। কিন্তু কিভাবে এ শূন্যতা পূরণ করবেন এ নিয়ে গত দুই দিন ঘাম ঝরেছে তাদের। হঠাৎ করে কোথায় পাওয়া যাবে। কাকে আনলে দলের ওই দুর্বলতা কাটিয়ে ওঠা যাবে। এ নিয়েই ওই টেনশন। তবুও আপ্রাণ চেষ্টা করেছে দলগুলো। অবশ্য পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের না পাওয়ায় বড় ধরনের তি হয়নি ঢাকার। মাশরাফির নেতৃত্বাধীন দলে সাকিব আল হাসান, এনামুল বিজয়, মোহাম্মাদ আশরাফুল, মোশাররফ রুবেল, সৌম্য সরকার প্রমুখ ছাড়াও ভিনদেশী শ্রীলঙ্কার লুকোরাচ্চি, ইংল্যান্ডের জাশুয়া কব, ক্রিস রিডল, ড্যারেন স্টিফেন দলের সাথে রয়েছেন। ফলে ততটা সমস্যা হওয়ার কথা নয় চ্যাম্পিয়ন দলের। তবে আজকের তাদের প্রতিপক্ষ খুলনার অবস্থা একটু বেশিই খারাপ। বিদেশী ক্রিকেটারের কোটার প্রায় সবই তারা পাকিস্তানের ক্রিকেটার দিয়েই সাজিয়েছিলেন। ওই এক সিদ্ধান্তে মাথায় বাজ পড়ার মতো অবস্থা তাদের। স্থানীয় শাহরিয়ার নাফিস, নাজিমুদ্দিন, ফরহাদ রেজা, শাহাদাত হোসেন রাজিব, ডলার মাহমুদ, সাকলাইন সজিবরা রয়েছেন। বিদেশী আছেন শেন হারউড ও রিকি ওয়েসেলস। তাদের নিয়েই আপাতত লড়তে হচ্ছে। দলটির যে অবস্থা তাতে অধিনায়কও ঠিক করতে পারেনি। তবে আপাতত শাহরিয়ার নাফিসের ওপর ভর করে দেশী ক্রিকেটারদের নিয়েই খেলে যাবেন ম্যাচ।
ঢাকার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা বলেন, তারা লোকাল ক্রিকেটার নিয়ে খেললেও সবার প্রস্তুতি ও শক্তিমত্তা প্রায় সমানই শর্টার ভার্সনে। ফলে প্রতিপক্ষকে খাটো করে দেখার উপায় নেই। হয়তো কিছুটা পিছিয়ে পরেছে তারা পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের জন্য। তবে এখন ভালো মানের রিপেসমেন্ট করার সুযোগ। ফলে দুর্বলতা আর থাকবে না তাদের।
অপর দিকে বিপিএলের প্রথম আসরের রানার্সআপ বরিশাল বার্নার্স গতবার বাজিমাত করেছিল ক্রিস গেইলকে কিনে। মাঠেও দুর্দান্ত পারফরম্যান্স ছিল বরিশালে ক্যারিবীয়র। বলা যায় প্রথম আসরের যে উত্তেজনা, জনপ্রিয়তা আর দর্শক গ্রহণযোগ্যতার অনেকটাই ছিল আফ্রিদিদের পাশাপাশি ওই গেইল। এবার তিনি নেই। আবার গতবারের মতো শক্তিশালী দলও গড়তে পারেনি তারা। তবুও লক্ষ্য ভালো ক্রিকেট। সিলেট রয়্যালসের বিপক্ষে আজ তাদের ম্যাচ। সে পরীক্ষায় তারা কিভাবে পার হবেন সেটা দেখার বিষয়।
সিলেট রয়্যালস প্রথম আসরে ভালো দল গড়তে পারেনি। তাই একের পর এক খেলায় হারতে হয়েছে। এবার সে অবস্থার পুনরাবৃত্তি করতে নারাজ দলের টিম ম্যানেজমেন্ট। আজকের ম্যাচে বরিশাল বার্নার্স দু’জন মাত্র বিদেশী ইংল্যান্ডের কবীর আলী ও আজহার মাহমুদকে নিয়ে। আরেক বিদেশী অস্ট্রেলিয়ান ব্রাড হগ আজ আসার কথা। কিন্তু এলেও তাকে খেলতে দেখা যাবে না। এ দিকে বরিশাল বার্নার্স গতকাল পর্যন্ত তাদের অধিনায়ক ঠিক করেনি। একটি সূত্রে জানা গেছে, ব্রাড হগ আসার পর তিনিই সে দায়িত্ব পালন করবেন। কিন্তু আজকের ম্যাচের জন্য অলক কাপালিকে বলা হয়েছিল। কিন্তু চাপমুক্ত খেলার জন্য অলোক কাপালি সে দায়িত্ব নিতে রাজি হননি। জানা গেছে, আজ মাঠেই দলের অধিনায়কের নাম ঘোষণা করা হবে।
এ দিকে সিলেট রয়্যালসে আজ পাঁচজন বিদেশী ক্রিকেটারকে খেলতে দেখা যেতে পারে। তিনজন ইতোমধ্যে বাংলাদেশে চলে এসেছেন। এ তিনজনই হলেন আবার জিম্বাবুয়ের। তারা হলেন  চিগুম্বুরা,  মাসাকাদজা ও পল স্টারলিং। অপর দু’জন দক্ষিণ আফ্রিকার ডার্ক ন্যানেস ও আফগানিস্তানের মোহাম্মদ নবী আজ আসবেন। গতবার বিদেশী খেলোয়াড়রা দলের ফলাফলে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করলেও এবার অন্তত দু’দলের প্রথম ম্যাচে দেশী ক্রিকেটারদের ওপরই নির্ভর করবে দলের সাফল্য। বরিশালের অলক কাপালি, শফিউল ইসলাম, ইলিয়াস সানি, শুভাগত হোম, সিলেটের মুশফিকুর রহিম, সোহাগ গাজী, মমিনুল হক সৌরভ, নাজমুল হোসেন সোহরাওয়ার্দী শুভ হতে পারেন সেসব ক্রিকেটার।
সিলেটের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম বলেন, গত বছর সিলেট রয়্যালসের ভালো কাটেনি। এবার আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ টার্গেট করে এগোবো। পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের না খেলার ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘আমাদের দলে নামী-দামি পাকিস্তানের ক্রিকেটার ছিল না। তাই সমস্যা হচ্ছে না। তা ছাড়া আমাদের বদলি ক্রিকেটারও চলে এসেছে।


খেলাধুলা এর অন্যান্য খবরসমূহ
পূর্বের সংবাদ