২ উইকেটে হার তবুও সুপার টেনে বাংলাদেশ

বাংলাদেশের বিপক্ষে ১০৯ রানের সহজ জয়ের লক্ষ্য নিয়ে ব্যাট করতে নেমে শুরুতে ব্যাটিংয়ের ঝড় উঠান হংকংয়ের দুই ওপেনার। কিন্তু সেই ঝড় বেশিক্ষণ স্থির হতে দেয়নি টাইগড়াররা। ১৩ ওভারে ৫ উইকেটে ৬৮ রান সংগ্রহ করেছে তারা। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ডে খেলায় শক্তিশালী আফগানিস্তান ও নেপালের বিপক্ষে দারুণ লড়াই করে টাইগাররা। তবে নিজেদের শেষ ম্যাচে বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামে হংকংয়ের বিপক্ষে ব্যাট করতে নেমে দারুণ হতাশ করেছে মুশফিকবাহিনী। ‘এ’ গ্রুপের সবচেয়ে দুর্বল দলের বিপক্ষে ব্যাট করতে নেমে ১৬.৩ ওভারে মাত্র ১০৮ রানে অলআউট হয়েছে স্বাগতিকরা।

গ্রুপের শেষ খেলায় হংকংয়ের বিপক্ষে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই সাজঘরে ফিরেন ওপেনার তামিম ইকবাল ও সাব্বির রহমান। জন্মদিনে নিজের মাঠে দর্শকদের হতাশ করেন তামিম। ওভারের দ্বিতীয় বলেই শূন্য রানে হংকং পেসার তানভীরের বলে সরাসরি বোল্ড হন তিনি।

এছাড়া সাব্বির রহমান প্রথম ওভারের শেষ বলে ২ রান করে তানভীরের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে সাজঘরে ফেরেন। তখন দুই উইকেটে বাংলাদেশের সংগ্রহ মাত্র ৩ রান।

এরপর ওপেনার আনামুল হক বিজয় ও সাকিব আল হাসান কিছুটা প্রতিরোধ গড়েন। এরপর দলীয় ৫১ রানের মাথায় আনামুল ১৭ বলে ২৬ রান করে নাদিম আহম্মেদের বলে বোল্ড হন। এরপর থেকেই নিয়মিত উইকেট হারাতে থাকে মুশফিকরা। সাকিব ২৭ ও মুশফিক ২৩ রান করে আউট হয়ে মাঠ ছাড়েন। তবে আর কেউ উইকেটে দাঁড়াতে পারেনি।

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ২ রান করে নাদিমের বলে বোল্ড হন। এরপর ফরহাদ রেজা (০) ও আব্দুর রাজ্জাককে (০) পরপর দুই বলে আউট করে হ্যাট্রিকের সম্ভাবনা জাগিয়ে তুলেন নিজাকাত খান। এরপর রুবেল হোসেন (০) রানে ও আল আমিন ১ রান করে নাদিমের বলে আউট হন।

নাদিম আহম্মেদ ৩.৩ ওভারে ২১ রান খরচ করে ৪টি এবং নিজাকাত খান ৪ ওভারে ১৯ রানে ৩ উইকেট শিকার করেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম জহুর আহম্মেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টসে জিতে স্বাগতিকদের ব্যাটিংয়ে পাঠায় হংকং জে জে আতকিনসন (অধিনায়ক)।

বাংলাদেশ দল: তামিম ইকবাল, এনামুল হক বিজয়, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম (অধিনায়ক), সাব্বির রহমান, নাসির হোসেন, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, ফরহাদ রেজা, আল আমিন হোসেন, আব্দুর রাজ্জাক ও রুবেল হোসেন।

হংকং দল: ওয়াকাস বরকত, ইরফান আহমেদ, জে জে আতকিনসন (অধিনায়ক), মার্ক চ্যাপম্যান, বাবর হায়াত, নিজাকাত খান, মুনির ধর, তানভীর আফজল, হাসিব আমজাদ, নাদিম আহমেদ, এহসান নওয়াজ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।