জামায়াতে ইসলামী বা ধর্মীয় রাজনীতি নিষিদ্ধের পরিকল্পনা নেই: আইন প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ২০ ডিসেম্বর (খবর তরঙ্গ ডটকম)- জামায়াতে ইসলামী বা ধর্মীয় রাজনীতি নিষিদ্ধে সরকারের কোন পরিকল্পনা নেই বলে জানিয়েছেন আইন প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম। বৃহস্পতিবার সকালে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে দলীয় কার্যালয়ের সামনে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি একথা জানান। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ ধর্মনিরপেক্ষ ও গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র। এদেশে সবার রাজনীতি করার অধিকার আছে। জামায়াতকে সরকারিভাবে নিষিদ্ধ করার কোন পরিকল্পনা সরকারের নেই। তবে জামায়াতকে জনগণই ক্রমান্বয়ে নিষিদ্ধ করবে।’

সরকার হরতাল নিষিদ্ধ করছে কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, প্রত্যেক দলের আন্দোলন করার গণতান্ত্রিক অধিকার রয়েছে। হরতালকে নিষিদ্ধ করারও কোন  পরিকল্পনা সরকারের নেই।

‘তবে যারা হরতালের নামে নৈরাজ্য সৃষ্টি করবে তাদের বিরুদ্ধে সরকার কঠোর ব্যবস্থা নিবে। রাজনৈতিক কর্মসূচিতে কেউ হরতাল দিলে সরকার তাতে বাধা দেবেনা’ যোগ করেন আইন প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘সব ইসলামিক দলই যুদ্ধাপরাধীদের পক্ষে নয়। আজকে ইসলামী দলগুলো হরতাল ডেকেছে বামপন্থীদের একটি দাবির বিরুদ্ধে।’

গত মঙ্গলবার জামায়াতে ইসলামীর রাজনীতি নিষিদ্ধ ও যুদ্ধাপরাধের বিচারের দাবিতে বামপন্থী দলগুলো হরতাল ডাকে।

এ সময় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের গ্রেপ্তার প্রসঙ্গে জানতে চাইলে কামরুল বলেন, তিনি সুনির্দিষ্ট মামলায় গ্রেপ্তার হয়েছেন। তার জামিন আদালতের বিষয়। এ বিষয়ে আমাদের কোন মন্তব্য নেই। তবে আন্দোলনের নামে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করা হলে সে যত বড় নেতা হোক তার বিরুদ্ধে মামলা হবেই।

এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন- ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, কেন্দ্রীয় নেতা এনামুল হক শামীম, ঢাকা মগানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ফয়েজ উদ্দিন মিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক হাজী মো. সেলিম প্রমুখ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।