ঠাকুরগাঁওে প্রিজাইডিং অফিসারকে পিটিয়ে হত্যা

শনিবার রাতে ঠাকুরগাঁও-১ আসনের একটি ভোটকেন্দ্রে হামলা চালিয়ে সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারকে পিটিয়ে হত্যা করেছে অজ্ঞাতরা। শনিবার রাত সোয়া ১১টার দিকে সদর উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের দেপড়িকুড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটনা।

নিহত সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারের নাম যোবাইদুর রহমান। এ সময় ভোটকেন্দ্রে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে আরো ২ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। এ সময় তাদের দুটি রাইফেল ছিনিয়ে নেয় দুর্বৃত্তরা। আহতদের ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

যোবাইদুর রহমানের লাশ ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ঠাকুরগাঁও অতিরিক্ত জেলা প্রাশাসক ড. মকছেদ আলী খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘এখন পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে। ওই কেন্দ্রে পুলিশ বিজিবি ও সেনাবাহিনীর সদস্যদের টহল বাড়ানো হয়।’

এদিকে, ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার মামুনশিয়া ভোটকেন্দ্রে হামলা চালিয়ে এক উপ-পরিদর্শকসহ তিন পুলিশ সদস্যকে কুপিয়ে জখম করেছে অজ্ঞাতরা। এ সময় তারা ভোটকেন্দ্রে আগুন ধরিয়ে দিলে বেশ কিছু ব্যালট পেপার পুড়ে যায়।

শনিবার রাত ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন- পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মিলন, পুলিশ সদস্য জামিরুল ইসলাম ও ওহিদুল ইসলাম।

হামলার খবরে সেনা বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে রাত ১১টার দিকে পুলিশের এসআই মিলন, পুলিশ সদস্য জামিরুল ইসলাম ও ওহিদুল ইসলামকে উদ্ধার করে কোটচাঁদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে।

কোটচাঁদপুর থানার ওসি শাহজাহান আলী জানান, রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার মামুনশিয়া গ্রামের ভোটকেন্দ্রে ১৮-দলীয় জোটের অর্ধশতাধিক কর্মী হামলা চালায়।

এ সময় তারা ২০টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে ভোটকেন্দ্রে প্রবেশ করে উক্ত পুলিশ সদস্যদের কুপিয়ে জখম করে।

এ সময় দুর্বৃত্তরা ভোটকেন্দ্রে পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিলে বেশ কিছু ব্যালট পেপার পুড়ে যায়।

 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।