ফেনী, নারায়ণগঞ্জ, লক্ষ্মীপুরসহ সারাদেশ আজ মৃত্যু উপত্যকা : হাফিজ

“দেশে এখন গুম-খুনের মহোৎসব চলছে। পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীও এতো অত্যাচার করেনি যতটা বাঙালির ওপর সরকার করছে। খুনিরা হয় মন্ত্রীর জামাই, ছেলে। ফেনী, নারায়ণগঞ্জ, লক্ষ্মীপুরসহ সারাদেশ আজ মৃত্যু উপত্যকা।” বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.)  উদ্দিন আহমেদ

শুক্রবার ১০.৩০টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে স্বাধীনতা ফোরাম কেন্দ্রীয় সংসদ আয়োজিত ‘বাংলাদেশের পানির ন্যায্য অধিকার: ভারতের নতুন সরকারের কাছে প্রত্যাশা’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় তিনি এ কথা বলেন।

হাফিজ উদ্দিন বলেন, “আওয়ামী লীগ সরকারের কাছে মানুষের জীবনের কোনো মূল্য নেই। শুধু একটি বিষয়ে তাদের মূল্য আছে সেটা হলো ভারতের চাওয়া পাওয়া। বাংলাদেশের মানুষের যে পানির প্রয়োজন আছে আওয়ামী লীগের মন্ত্রীদের কথায় কখনো তা প্রকাশ পায়নি। কারণ তারা পানি চায় না।”

বিএনপির এই নেতা বলেন, “দেশ স্বাধীন হওয়ার পরে ভারত আমাদের ৫৪টা নদীর প্রত্যেকটির ওপর বাঁধ নির্মাণ করে একতরফাভাবে পানি প্রত্যাহার করেছে। ভারতের কারণে দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলে আমাদের ২০টি নদী আমাদের হারিয়ে গেছে।”

৫ জানুয়ারির নির্বাচনের মধ্য দিয়ে এদেশে গণতন্ত্রের মৃত্যুঘণ্টা বাজিয়ে দিয়েছে আওয়ামী লীগ সরকার মন্তব্য করে মেজর হাফিজ বলেন, “আজকে যদি একটা নির্বাচন হতো কংগ্রেসের যে অবস্থা হয়েছে একই অবস্থা হতো আওয়ামী লীগের।”

ফারাক্কা চুক্তি অনুযায়ী ভারত পানি বন্ধ করতে পারে না মন্তব্য করে মেজর হাফিজ বলেন, “ভারত যে আমাদের পানি দিচ্ছে না এটা আন্তর্জাতিক আইনের লংঘন। তারা চায় না আমরা তৃতীয় কোনো দেশের সঙ্গে বিশেষ করে নেপাল ও চীনের সঙ্গে মিলে এ সমস্যার সমাধান করি। আমাদের ন্যায্য দাবির প্রতি তাদের ভ্রুক্ষেপ নেই।”

বিজেপি প্রসঙ্গে হাফিজ বলেন, “মোদির আগমনে বিএনপি ব্যথিতও নয়, উল্লসিতও নয়। স্বাধীনতা স্বার্বভৌমত্বের ক্ষেত্রে কোনো আপস আমরা করব না। আমরা আশা করব ভারতের নতুন সরকার আমাদের ন্যায্য দাবির প্রতি যথাযথ সম্মান দেখাবে।”

স্বাধীনতা ফোরাম কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি আবু নাসের মোহাম্মদ রহমত উল্ল্যার সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা শামসুজ্জামান দুদু, ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি অধ্যাপক ড. পিয়াস করিম, সাবেক সংসদ সদস্য খাইরুল কবীর খোকন, বিএনপি সহ-স্বেচ্ছাবিষয়ক সম্পাদক এ বি এম মোশাররফ, জাতীয়তাবাদী কর্মজীবিদলের সাধারণ সম্পাদক আলতাফ হোসেন সরকার, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদীন, অ্যাডভোকেট আবেদ রাজা প্রমুখ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।